মুস্তাফিজে মুগ্ধ অ্যাগার

0
154

অস্ট্রেলিয়া বধের রূপকথা সত্যি হবার খুব কাছেই বাংলাদেশ। যে ক্যাঙ্গারুদের বিপক্ষে কখনো টি-টোয়েন্টি ম্যাচই জেতা হয়নি তাদেরই ঘরের মাঠে পেয়ে যেন মরণ কামড় বসিয়ে দিচ্ছে টাইগাররা। টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচেই তারা জিতেছে বীর দর্পে, অজিদের ভুগিয়েছে বেশ। বিশেষ করে মুস্তাফিজুর রহমানের ওভারগুলোতে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানদের অসহায়ত্ব ফুটে উঠেছে প্রতিটা বলেই।

কাটার স্লোয়ারে বিদ্ধস্ত করেছেন তো অবশ্যই, কখনো তার বল বুঝতেই পারেননি ওয়েড-ফিলিপেরা। প্রথম ম্যাচে অজি ব্যাটসম্যানরা ফিজের করা ৪ ওভারের ১২ বল থেকেই রান তুলতে ব্যর্থ হয়েছেন। বাকি ১২ বলে নিতে পেরেছিল মাত্র ১৬ রান। বাউন্ডারি একটি। উল্টো তাকে উপহার দিতে হয়েছে ২টি উইকেট। দ্বিতীয় ম্যাচেও ভয়ঙ্কর মুস্তাফিজ রান দিয়েছেন ২৩।তাও ফিলিপে-ওয়েড অ্যাগারদের নাভিশ্বাস তুলে। তার বল বুঝে উঠতে না পেরে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে এসেছেন এই তিন ব্যাটসম্যান।
ড্রেসিং রুমে ফিরতে ফিরতে তার মুখের অভিব্যাক্তিই বলে দেয় ফিজ ধাঁধায় কতটা নাজেহাল তারা। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে দেয়া সাক্ষাতকারে এসে তাই মুস্তাফিজের বোলিংয়ের প্রশংসায় মত্ত অ্যাগার। তিনি বলেন, মুস্তাফিজের বল খেলা খুবই কঠিন, সে সত্যিই খুবই ভালো বোলার। ধীর গতির বল করার অসাধারণ ক্ষমতা রয়েছে তার। আপনি যদি তার বোলিং স্লো মোশনে দেখেন তাহলে দেখবেন সে তার কব্জি এবং আঙ্গুলগুলোকে দারুণভাবে ব্যবহার করে। এক্ষেত্রে তার অবিশ্বাস্য দক্ষতা রয়েছে, পুরোপুরি অবিশ্বাস্য।

অ্যাগার আরো বলেন, ‘তার বলগুলো খুব ধীর গতিরও নয় তাই যে কোন সময় যে কোন কিছু হতে পারে। উইকেটে পরে বলগুলো হয় ধীরগতির নয়তো অনেক টার্ন করতে পারে। আবার কখনো নাও হতে পারে। সে সত্যিই ‘সুপার ভ্যারিয়েবল’। সে বল হাতে যতটা সম্ভব সুযোগ তৈরি করতে পারে। আমি মনে করি, তার অধিকাংশ বলই ধীর গতির। তাকে মোকাবেলা করার পথ আমাদের খুঁজে বের করতে হবে।’

এদিকে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি শেষের পর মুস্তাফিজের প্রশংসা শোনা গিয়েছে অজি অলরাউন্ডার মইসেস হেনরিকসের মুখেও। রাখ ঢাক না রেখেই তিনি বলে দিয়েছিলেন, মুস্তাফিজের স্লোয়ার যুগান্তকারী। যেগুলো আইপিএলেও করতে দেখা যায় না ফিজকে।

অর্থসূচক/এএইচআর