করোনা ও উপসর্গে রামেক হাসপাতালে আরও ১৭ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
94
ফাইল ছবি

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ও উপসর্গ নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরও ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে করোনায় ছয়জন, করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে আটজন এবং করোনা নেগেটিভ হয়ে তিনজন মারা গেছেন।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার (০৪ আগস্ট) সকাল ৯টা থেকে বৃহস্পতিবার (০৫ আগস্ট) সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ইউনিটে এরা মারা যান।

আজ বৃহস্পতিবার (০৫ আগস্ট) সকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নাটোরের তিনজন, রাজশাহীর একজন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের একজন এবং নওগাঁর একজন মারা গেছেন করোনা সংক্রমণে। উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন রাজশাহীর তিনজন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুইজন, পাবনার দুইজন এবং নাটোরের একজন। করোনা নেগেটিভ সত্ত্বেও অন্যান্য শারীরিক জটিলতায় রাজশাহী, পাবনা এবং কুষ্টিয়ার একজন করে মারা গেছেন।

রামেক পরিচালক আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ চারজন মারা গেছেন হাসপাতালের ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে। এ ছাড়া ১৬ ও ২৯/৩০ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজন করে, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে দুজন এবং নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্র (আইসিইউ), ১, ৫, ১৪, ২২ ও ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে একজন করে মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত ৫১৩ শয্যার রামেক করোনা আইসোলেশন ইউনিটে রোগী ভর্তি ছিলেন রাজশাহীর ১৭০ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৪০ জন, নাটোরের ৫৭ জন, নওগাঁর ৩২ জন, পাবনার ৬৬ জন, কুষ্টিয়ার আটজন, চুয়াডাঙ্গার পাঁচজন, জয়পুরহাটের তিনজন, বগুড়ার দুজন এবং ঝিনাইদহ জেলার একজনসহ মোট ৩৯১ জন। ২০ শয্যার আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন ২০ জন।

এদের মধ্যে করোনা নিয়ে এ পর্যন্ত ভর্তি রয়েছেন ১৮৮ জন। এ ছাড়া উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১২৬ জন। করোনা ধরা পড়েনি হাসপাতালে ভর্তি ৭৭ জনের নমুনায়। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩৯ জন। এই এক দিনে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৩৬ জন।

এর আগে বুধবার (০৪ আগস্ট) রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল ল্যাবে ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে করোনা ধরা পড়েছে ৩৩ জনের নমুনায়। একই দিনে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে আরও ২৮২ জনের। এর মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪৫ জনের। পরীক্ষার অনুপাতে রাজশাহীর ২৩ দশমিক ৭১ শতাংশ এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের ১৭ দশমিক ৪৮ শতাংশ নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে।

অর্থসূচক/কেএসআর