ছাগীর কাছে যাওয়ায় ‘প্রেমিক’ ছাগলকে পিটিয়ে হত্যা!

অর্থসূচক ডেস্ক

0
150

ভালোবাসা মানে না কোন বাধা। ভালবাসার টানে সব বাধা ভেঙে প্রেমিক ছুটে যায় প্রেমিকার কাছে। কখনও সে গল্পের হ্যাপি এন্ডিং হয় তো কখনও আবার পরিবারের লোক ভিলেন হয়ে কাহিনির ট্র্যাজিক এন্ড ঘটায়। মানব সমাজে চিরকালই ঘটছে এ ঘটনা। কিন্তু ভাবুন তো, যদি ছাগলের সঙ্গেও এমনটা হয়ে থাকে!

না, অলীক কল্পনা নয়, বাস্তবেই এমনটা হয়েছে। এ কাহিনির শেষটা অবশ্য সুখের হল না। ছাগীর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ায় তার মালিকের হাতে প্রাণই খোয়াতে হল ছাগলকে।

এমনই আজব ঘটনা ঘটেছে ভারতের বিহারে। গত বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) সে রাজ্যের চৌরাসিয়া গ্রামে নেহাতই নিরীহের মতো ছাগীর কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছিল ছাগলটি। কিন্তু অদৃষ্টের পরিহাস। ছাগলকে দেখেই মেজাজ হারায় ছাগীর মালিক সিপু রাম। প্রাণে মেরে ফেলে ছাগলটিকে। তবে হাত গুটিয়ে বসে থাকেননি ছাগলের মালকিন রাধা দেবীও। সোজা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি।

রাধার অভিযোগ, পাশের বাড়ির ছাগীর কাছে গিয়েছিল আমার ছাগলটা। বিষয়টা সিপুর চোখে পড়তেই তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠে সে। আমার পোষা ছাগলটাকে মারতে শুরু করে। আমি তখন খাচ্ছিলাম। একজন এসে আমায় খবর দিতেই ছুটে যাই সিপুর বাড়ি। গিয়ে দেখি একটা বেত হাতে দাঁড়িয়ে সিপু। মাটিতে লুটিয়ে পড়ে আমার পোষ্যটি।

এভাবে একটা নিরীহ প্রাণীতে ‘হত্যা’ করার জন্য সিপু রামের কঠোর শাস্তির দাবি তুলেছেন রাধা। পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা রাধার আশা তিনি সুবিচার পাবেন। এমন একটা সামান্য কারণের জন্য পোষ্যকে হারাতে হয়েছে বলে শোকাহত রাধা দেবী।

তবে এই প্রথম নয়, বিহারের কইমুর জেলায় এমন ঘটনা আগেও ঘটেছে। বছর দুয়েক আগে একটি পাখি মারার অভিযোগে সাতজনের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল। এবার শিরোনামে এল ছাগলের মৃত্যুর ঘটনা। পুলিশ জানিয়েছে, ছাগলের দেহের ময়নাতদন্ত হয়েছে। রিপোর্টের অপেক্ষায় রয়েছেন তারা।

অর্থসূচক/কেএসআর