লাইফ ইন্স্যুরেন্সে মাঠ-কর্মীদের কমিশন পুনর্বিন্যাস

0
910

দেশে ব্যবসায়রত জীবন বীমা কোম্পানিগুলোর (Non-Life Insurance Company) মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের সুপারভাইজরি লেভেল ও কমিশন পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) এই বিষয়ে একটি সার্কুলার জারি করেছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)। নতুন নির্দেশনা আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে কার্যকর হবে।

মাঠ পর্যায়ের সাংগঠনিক কাঠামোতে বিদ্যমান সমস্যাসমূহ নিরসন এবং ব্যবস্থাপনা ব্যয় নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে সুপারভাইজরি লেভেল ও কমিশন পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে বলে সার্কুলারে উল্লেখ করা হয়েছে।

আইডিআরএ সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সার্কুলার অনুসারে, সুপারভাইজরি লেভেলে ৫টির পরিবর্তে ৩টি গ্রেডে কর্মকর্তা নিয়োগ করতে পারবে জীবন বীমা কোম্পানিগুলো। গ্রেড ৩টি হচ্ছে- জেনারেল ম্যানেজার (জিএম), ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) ও অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার (এজিএম)।

নতুন কাঠামো অনুসারে, মাঠ পর্যায়ে প্রত্যেক ইউনিট ম্যানেজারের অধীনে কমপক্ষে ৫ জন ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাসোসিয়েট থাকবে। প্রত্যাক ব্রাঞ্চ ম্যানেজারের অধীনে কমপক্ষ্যে ৪ জন সক্রিয় ইউনিট ম্যানেজার থাকবে। প্রত্যেক সুপারভাইজারের অধীনে ৩ জন উন্নীন কর্মকর্তা থাকবে। অর্থাৎ একজন জিএমের অধীনে কমপক্ষে ৩ জন ডিজিএম; একজন ডিজিএমের অধীনে কমপক্ষে ৩ জন এজিএম, একজন এজিএমের অধীনে কমপক্ষে ৩ জন ব্রাঞ্চ ম্যানেজার থাকবে।

কমিশনের বিষয়ে সার্কুলারটিতে বলা হয়েছে, প্রথম বছরের প্রিমিয়াম থেকে ফাইন্যান্সিয়াল এসোসিয়েটরা যে হারে কমিশন পাবে তার উপর ইউনিট ম্যানেজার ৩০ শতাংশ বেসিক কমিশন ও ৫ শতাংশ বিশেষ কমিশনসহ মোট ৩৫ শতাংশ কমিশন পাবে। অন্যদিকে ব্রাঞ্চ ম্যানেজাররা পাবে ২০ শতাংশ বেসিক কমিশন ও ১০ শতাংশ বিশেষ কমিশনসহ মোট ৩০ শতাংশ কমিশন।

সুপারভাইজরি লেভেলের কর্মকর্তাদের মধ্যে জিএম ১৪ শতাংশ, ডিজিএম ১৬ শতাংশ এবং এজিএম ১৮ শতাংশ কমিশন পাবে।

সার্কুলারে আরও বলা হয়, সহকারী ব্যবস্থাপনা পরিচালক, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক, অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে কমিশন ভিত্তিক নিয়োগ বা পদায়ন করা যাবে না।