ইসরায়েলের সামরিক বাসে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

গাজার উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্তে ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর একটি বাসে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। বৃহস্পতিবার (২০ মে) এ খবর জানিয়েছে ইসরায়েলি সংবাদ মাধ্যম হারেৎজ।

হামলার বিষয়টি স্বীকার করে ইসরায়েল প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ) বলছে, বাসে ট্যাংক বিধ্বংসী গোলা দিয়ে হামলা চালানো হয়েছে। এতে এক সেনা সদস্য সামান্য আহত হয়েছে। ওই বাসটিতে কেউ ছিল না।

সেনা সূত্র জানিয়েছে, বাসটির ওপর গোলা নিক্ষেপের সময় একজন সেনা সদস্য বাসটির কাছে দাঁড়িয়ে ছিল। বিস্ফোরণের পর একটি অংশ এসে ওই সেনার শরীরে লাগে। এতেই তিনি সামান্য আহত হন।

তবে হামাস বলছে, বৃহস্পতিবার সকালে সেনাভর্তি বাসে ট্যাংক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলার পরপরই ওই স্থানে ব্যাপকভাবে মর্টারের গোলা নিক্ষেপ করা হয়। ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলে রকেট হামলার সাইরেন বাজানোর পর সেনাভর্তি বাসে হামলার খবর এলো। এর আগে আট ঘণ্টা পর্যন্ত কোনো রকেট হামলা হয়নি।

এদিকে, ইসরায়েলি ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মিডিয়া খবর দিচ্ছে যে, শুক্রবারের মধ্যে যুদ্ধবিরতি হতে পারে। এর আগে হামাসের উপ প্রধান আবু মুসা মারজুক জানিয়েছিলেন, দুই একদিনের মধ্যে যুদ্ধবিরতি হতে পারে। গাজা উপত্যকায় বর্বর আগ্রাসন চালানোর জন্য ইসরায়েল আন্তর্জাতিক অঙ্গনে চাপ ও সমালোচনার মুখে রয়েছে।

সূত্র: নিউইয়র্ক টাইমস।

অর্থসূচক/কেএসআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...