তালাক দেওয়া স্ত্রীকে ধর্ষণের মামলায় এসআই গ্রেফতার

তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলায় আজিজুল হক (৪৫) নামে পুলিশের এক কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শনিবার (২৪ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে যশোর কোতোয়ালি থানায় করা ধর্ষণের মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়। এর আগে সকালে যশোর থেকে তাকে আটক করা হয়।

আজিজুল হক পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) পদে কর্মরত। তিনি যশোর সদর উপজেলায় থাকেন।

আজিজুল হক ঢাকার আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) থেকে পুলিশের খুলনা রেঞ্জে বদলি হয়েছেন। এখনো যোগদান করেননি। তার বাড়ি সাতক্ষীরার তালা উপজেলার সুরুরিয়া গ্রামে।

মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, ২০১৯ সালের ২৭ ডিসেম্বর আজিজুল হক সবুজের সঙ্গে ওই নারীর বিয়ে হয়। আজিজুলের আগেও তিনটি বিয়ে ছিল। চাকরির সুবাদে আজিজ কর্মস্থলে থাকতেন। মাঝে মাঝে যশোরে বাদীর বসতবাড়িতে আসতেন এবং তারা অন্য দম্পতিদের মতো বসবাস করতেন।

ওই নারী বলেন, আজিজুল ২০২০ সালের ১৪ ডিসেম্বর সাতক্ষীরায় আরেক মেয়েকে বিয়ে করেন। পরে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি আমাকে তালাক দেন। এরপর গত শুক্রবার রাত একটার দিকে আজিজ আমার ঘরের দরজায় নক করেন। আমি দরজা খোলামাত্র তিনি ঘরে ঢুকেই ভেতর থেকে দরজা বন্ধ করে দেন। ওই সময় তিনি আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণ করেন। পরে আজিজ ওয়াশরুমে ঢুকলে আমি ৯৯৯ নাম্বারে ফোন দেই। এরপর কোতয়ালী থানা পুলিশ এসে আমাকে উদ্ধার করে।

যশোর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম বলেন, আজিজুল ধর্ষণ করেছেন অভিযোগে তার তালাক দেওয়া স্ত্রী মামলা করেছেন। ওই মামলায় আজিজুলকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

৯৯৯-এ কল পেয়ে পুলিশ পাঠিয়ে আজিজুলকে আটক করা হয়। তবে ওই নারী মামলা করতে রাজি ছিলেন না। তিনি আপস করে আর্থিক সুবিধা নেওয়ার চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু ধর্ষণের অভিযোগ আপসযোগ্য না। সেই কারণে মামলা হয়েছে, যোগ করেন ওসি তাজুল ইসলাম।

অর্থসূচক/কেএসআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...