লেনদেনের গতিশীলতায় সপ্তাহ শেষ

0
70
ব্রোকারহাউজ-ফাইল ফটো

করোনা আতঙ্কে বেশ বড় ঝাঁকুনি খাওয়ার পর গত সপ্তাহে কিছুটা গতি ফিরে পেয়েছিল দেশের পুঁজিবাজার। এই সময় বাজারে লেনদেন ও সূচক দুটোই বেড়েছে। বেড়েছে বাজারমূলধন।

ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের বাজার বিশ্লেষণে এই চিত্র পাওয়া গেছে।

গত সপ্তাহে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের সপ্তাহের চেয়ে ১২৪ দশমিক ৮৪ পয়েন্ট বেড়েছে। আগের সপ্তাহে তা ৫৫ দশমিক ৪১ পয়েন্ট বেড়েছিল। সপ্তাহের শুরুতে এই সূচকের অবস্থান ছিল ৫ হাজার ৩১০ দশমিক ১৯ পয়েন্ট। সপ্তাহ শেষে তা ৫ হাজার ৪৩৫ দশমিক ০৩ পয়েন্টে উঠে এসেছে।

গত সপ্তাহে বাজারমূলধনে শীর্ষ ৩০ কোম্পানির মূল্যসূচক ডিএস৩০ আগের সপ্তাহের চেয়ে ৬০ দশমিক ৭৩ পয়েন্ট বেড়েছে। অন্যদিকে সপ্তাহের ব্যবধানে শরীয়াহ সূচক ডিএসইএস বেড়েছে ২৮ দশমিক ৩১ পয়েন্ট।

ডিএসইতে গত সপ্তাহে ৩৬৯ কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট কেনাবেচা হয়। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ২০৬ টির, কমেছে ১০০ টির। আর ৬৩ টির দাম ছিল অপরিবর্তিত। অন্যদিকে ৬টি কোম্পানির কোনো শেয়ার কেনাবেচা হয়নি আলোচিত সপ্তাহে।

গত সপ্তাহেও বাজারে লেনদেন বেড়েছে। এ সপ্তাহে ডিএসইতে গড়ে দৈনিক ৮৫১ কোটি ৫৭ লাখ টাকা মূল্যের শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে, আগের সপ্তাহেও যার পরিমাণ ছিল ৫০৪ কোটি ৮০ লাখ টাকা।