নরসিংদীতে মানসিক ভারসাম্যহীন যুবকের ছুরিকাঘাতে নিহত ২

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
81

নরসিংদীতে মানসিক ভারসাম্যহীন যুবকের ছুরিকাঘাতে দুই কৃষক নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও তিনজন। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আজ বুধবার (০৭ এপ্রিল) সকালে উপজেলার নজরপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ছগরিয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
ছুরিকাঘাতে নিহত দুজন হলেন ছগরিয়াপাড়া গ্রামের আবুল ফজলের ছেলে মো. ফরহাদ মিয়া (৫০) ও দেওয়ান আলীর ছেলে আলী আকবর (৫৬)।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত যুবকের নাম মো. ইউনুস আলী (৩০)। তিনি একই গ্রামের সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী মো. মান্নান মিয়ার ছেলে। পুলিশ মানসিক ভারসাম্যহীন যুবক ইউনুসকে আটক করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

নিহত দুজনের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আজ সকাল নয়টার দিকে ইউনুস আলী তার মায়ের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি করে বড় একটি ছুরি হাতে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন। পরে পথে যাকে সামনে পেয়েছেন, তাকেই ছুরিকাঘাত করেছেন। প্রথমে ছুরিকাঘাত করেন মামাতো ভাই আল আমিনকে। বাধা দিতে এলে সম্পর্কে এক নানাকে ছুরি হাতে নিয়ে ধাওয়া দেন।

এরপর নিজের জমি থেকে ফেরার পথে পেছন দিক থেকে ফরহাদ মিয়ার পিঠে ছুরিকাঘাত করেন ইউনুস আলী। পরে ছুরিকাঘাত করেন আলী আকবরকে। এ ছাড়া ইউনুস আলীর ছুরিকাঘাতে আহত হয়েছেন সেন্টু মিয়া ও অপর এক অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি। তাদের মধ্যে ফরহাদ মিয়া ও আলী আকবর মারা গেছেন। ছুরিকাহত অপর তিনজনকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

নজরপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য মো. জাহাঙ্গীর আলম গণমাধ্যমকে বলেন, ইউনুস আলী একাই পাঁচজনকে কুপিয়েছেন। নিহত হয়েছেন দুজন আর আহত হয়েছেন অপর তিনজন। পরে স্থানীয় লোকজন ইউনুসকে আটক করে পিটুনি দেন এবং দড়ি দিয়ে বেঁধে ফেলেন। এরপর তাকে নরসিংদী মডেল থানার পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার চৌধুরী বলেন, মানসিক ভারসাম্যহীন ইউনুসকে আটকের পর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। একই সঙ্গে নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অর্থসূচক/কেএসআর