রাতেও দেওয়া যাবে ই-কমার্সের পণ্য ডেলিভারি

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে লকডাউনের সময় সকাল ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ই-কমার্সের পণ্য ডেলিভারি দেওয়া যাবে। মহামারিকালে অনলাইন পণ্য ক্রয়-বিক্রয়কে উৎসাহিত করতে এমন নির্দেশনা দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

আজ মঙ্গলবার (০৬ এপ্রিল) এ নির্দেশনা দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এর আগে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ই-ক্যাব) পক্ষ থেকে এ বিষয়ে আবেদন করা হয়েছিল।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় নির্দেশনায় বলা হয়, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কৃষিপণ্যসহ অন্যান্য অত্যাবশ্যকীয় পণ্য পরিবহনে নিয়োজিত ট্রাক বা যানবাহন সার্বক্ষণিক চলাচল করতে পারবে। অনলাইন বা ই-কমার্সের মাধ্যমে ক্রয়-বিক্রয়কে উৎসাহিত করতে ই-কমার্সের পণ্য ডেলিভারি সকাল ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত স্বাভাবিক চলাচল করতে পারবে।

ডেলিভারিম্যান ও পণ্য পরিবহনে নিয়োজিত ব্যক্তি ও যানবাহনের প্রয়োজনীয় পরিচয়পত্র নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান প্রদান করবে। ই-কমার্সের ডেলিভারি কাজে নিয়োজিত ডেলিভারিম্যান ও যানবাহনের জন্য ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) লোগো এবং সিরিয়াল নম্বর সম্বলিত স্টিকার লাগাতে পারবে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট রেস্টুরেন্টের রান্নাঘর সকাল ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত খোলা রাখতে পারবে। তবে রেস্টুরেন্টে বসে বা অবস্থান করে খাবার খাওয়া যাবে না। শুধু পার্সেলের মাধ্যমে খাবার ডেলিভারি দিতে পারবে। ডেলিভারিম্যান কোনভাবেই রেস্টুরেন্টের রান্নাঘরে প্রবেশ করতে পারবে না। প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে রান্নাঘরের বাইরে থেকে পার্সেল গ্রহণ করবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে গ্রাহকের কাছে তা পৌঁছে দিতে হবে।

অর্থসূচক/কেএসআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...