ইবিএল বাংলাদেশের সেরা ডমেস্টিক ব্যাংক

শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রকাশনা ‘এশিয়ামানি’ ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেডকে (ইবিএল) বাংলাদেশের সেরা ডমেস্টিক ব্যাংক ২০২১ হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করেছে। গত ২৬ মার্চ এশিয়ামানির পক্ষ থেকে এই ঘোষণা প্রদান করা হয়।

বিগত ১২ মাসে অসাধারণ সাফল্যের স্বীকৃতি হিসেবে ইবিএল এই সম্মানজনক পুরস্কারটি লাভ করে। ইতোপূর্বে, উপর্যুপরি চার বছর (২০১৭-২০) এশিয়ামানি ইবিএল-কে বাংলাদেশের সেরা কর্পোরেট ও বিনিয়োগ ব্যাংক হিসেবে নির্বাচিত করে।

করোনা মহামারিকালে রিটেইল বিনিয়োগকারীদের জন্য সেবার পরিধি বিস্তৃত করতে ইবিএল কর্তৃক গৃহীত ব্যাপক কার্যক্রমের প্রশংসা করে এশিয়ামানি।

কোভিড-১৯ সংকটকালে ইবিএল তার ডিজিটাল ব্যাংকিং প্ল্যাটফর্মে নতুন কিছু ফিচার যুক্ত করে যার মধ্যে রয়েছে ইবিএল ইন্সটা একাউন্ট, যা গ্রাহকরা ই-কেওয়াইসি’র সাহায্যে দূরে থেকেই খুলতে পারেন। ইবিএল স্কাই ব্যাংকিং অ্যাপটিও ক্রমাগতভাবে উন্নততর করা হচ্ছে। এটিকে ভবিষ্যতে একটি ওমনি-চ্যানেল প্ল্যাটফর্মে রুপান্তরিত করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে, যাতে ব্যাংক শাখাগুলোর ওপর চাপ কমে আসে।

ব্যাংকের ই-কমার্স এবং ডিজিটাল চ্যানেলে গত বছর ৭৯ লক্ষ লেনদেন হয়েছে, লেনদেনের পরিমান ৮৪৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ২.৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার লেনদেন হয়েছে স্কাই ব্যাংকিং-এর মাধ্যমে এবং বাকীটার অধিকাংশই হয়েছে এটিএম-এ।

২০২০ সালে মহামারি সত্ত্বেও ইবিএল তার টিয়ার-১ মূলধন ১৩ দশমিক ২৬ শতাংশ বৃদ্ধি করতে সমর্থ হয়। এই মূলধনের মোট পরিমান ছিল ২৩ দশমিক ৪৭ বিলিয়ন টাকা। ব্যাংকের নিট প্রফিট ২ দশমিক ৩৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৪ দশমিক ১ বিলিয়ন টাকায় উন্নীত হয়। নন-পারফর্মিং ঋণ ২ দশমিক ৬৬ শতাংশে নেমে আসে যা ২০১৯ সালে ছিল ৩ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

অংশগ্রহণকারীদের কাছ থেকে বিস্তারিত তথ্য লাভের পর সিনিয়র সাংবাদিকদের একটি দল এশিয়ামানি পুরস্কারের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। এছাড়াও সম্পাদকীয় কমিটি কর্তৃক পরিচালিত ব্যাংকিং এবং ক্যাপিটাল মার্কেট গবেষণা প্রতিবেদনও বিবেচনা করা হয়। সিনিয়র সম্পাদকরা অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দেশ ভিজিট করেন এবং শীর্ষস্থানীয় ব্যাংকারদের সঙ্গে আলোচনা করেন। গ্রাহকের এবং প্রতিদ্বন্দ্বীদের ফিডব্যাকও পর্যালোচনা করা হয়।

অর্থসূচক/কেএসআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...