রংপুরে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্পের আঞ্চলিক কর্মশালা

দেশের কৃষিখাতকে উন্নত ও বেগবান করার লক্ষ্যে কৃষি যান্ত্রিকীকরণের নিরন্তর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার। ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে খামার যান্ত্রিকীকরণের তিন হাজার ২০ কোটি টাকার প্রকল্প। এরই অংশ হিসেবে শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রংপুর জেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রকল্পের কর্মসূচি অবহিত করণের জন্য এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. আসাদুল্লাহ।

আরও উপস্থিত ছিলেন কৃষি যান্ত্রিকীকরণ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মো বেনজীর আলমসহ কৃষি অধিদপ্তরের আঞ্চলিক কর্মকর্তারা। কর্মশালায় দেশের প্রধান কৃষি যন্ত্র সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান এসিআই মোটরস্ জাপানী ইয়ানমার সহ অন্যান্য আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতি প্রদর্শন করে।

প্রদর্শিত যন্ত্রগুলোর মধ্যে ছিল ধান ও গম কাঁটা, মাড়াই, ঝাড়াই ও বস্তাবন্দী করার অত্যাধুনিক মেশিন জাপানের ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার ও চারা লাগানোর মেশিন রাইস ট্রান্সপ্লান্টার। এ সময় বিক্রয়োত্তর সেবাকে আরও আধুনিক করার জন্য প্রদর্শিত হয় ইয়ানমার সার্ভিস এক্সপ্রেস ভ্যান, যা দ্বারা হাওর ও অন্যান্য এলাকায় অন দ্যা স্পট সার্ভিস প্রদান করা সম্ভব হবে।

বাংলাদেশে কৃষি যান্ত্রিকীকরণ লক্ষ্যে এসিআই মোটরস প্রায় এক যুগ ধরে কাজ করে আসছে। আধুনিক ও উন্নতমানের সব কৃষি যন্ত্রপাতি সাধারণ মানুষের মাঝে ছড়িয়ে দিতে নতুন নতুন আইডিয়া নিয়ে কাজ করছে তারা। ২০২০ সালের বোরো মৌসুমে করোনার কঠিন বিপর্যয়ের সময়ও ৭৫০টিরও বেশি ইয়ানমার কম্বাইন হারভেস্টার সরবরাহ করে বাংলাদেশের কৃষি ক্ষেত্রে এক বিপ্লব সৃষ্টি করেছে এসিআই মোটরস্। শুধু তাই নয়, দেশব্যাপী দক্ষ নেটওয়ার্ক ও লোকবলের মাধ্যমে বিক্রয়োত্তর সেবাও নিশ্চিত করছে প্রতিষ্ঠানটি।

অর্থসূচক/কেএসআর