টিকা প্রদানে দক্ষিণ এশিয়ায় সবচেয়ে সফল বাংলাদেশ: তথ্যমন্ত্রী

সক্ষমতার দিক থেকে করোনার টিকা প্রদানে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশ সবচেয়ে সফল বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণায় বলা হয়েছে বাংলাদেশ এই উপমহাদেশের মধ্যে সবার চেয়ে সক্ষমভাবে করোনার টিকা দেওয়ার ক্ষেত্রে সফলতা অর্জন করেছে।

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর কারওয়ান বাজারে বিজনেস ইনসাইডার নামের একটি পত্রিকার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশ এখনও টিকা সংগ্রহ করতে পারেনি উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ১২৫টা দেশ এখনও টিকা কার্যক্রম শুরু করতে পারেনি। দেশে করোনার টিকা নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে। সকল সমালোচকদের মুখে চুনকালি দিয়ে আমরা করোনার টিকা সঠিক ভাবে দিচ্ছি, দিতে পারছি। মানুষ বিপুল উৎসাহে নিচ্ছে এবং যারা সমালোচনা করছে তারাও নিচ্ছে। এ সময় টিকা নেওয়ায় সমালোচকদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণমাধ্যমকে উদ্দেশ্য করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে জাতিকে আশাবাদী করতে হবে। গত ১০ বছরে যে অগ্রগতি হয়েছে তা তুলে ধরার পাশাপাশি আরও কিভাবে তা আরও প্রসার করা যায় তা তুলে ধরতে হবে।

‘তবে ব্যাংকিং সেক্টরসহ অন্য কোন জায়গায় যদি কোন অনিয়ম থাকে তাহলে সেগুলো তুলে ধরতে হবে। সেটি তুলে ধরার ফলেই অনিয়ম বন্ধ হবে এবং যারা কাজ করে তাদের জন্য কাজ করতেও সুবিধা হবে।’

ড. হাছান মাহমুদ আরও বলেন, আমাদের লক্ষ্য একটি উন্নত রাষ্ট্রগঠনের পাশাপাশি একটি উন্নত জাতি গঠন করা। আমরা একটি মানবিক রাষ্ট্র গঠন করতে চাই। শুধুমাত্র বস্তুগত উন্নয়ন দিয়ে না। আমাদের দেশে যেন বস্তুগত উন্নয়নের সাথে মানবিক অবক্ষয় না হয়, পারিবারিক মূল্যবোধের অবক্ষয় না হয়, সামাজিক মূল্যবোধের অবক্ষয় না হয়।

বিজনেস ইনসাইডার পত্রিকার বিষয়ে অনুষ্ঠানে বিজনেস ইনসাইডার মিডিয়া লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সাবেক চেয়ারম্যান মো. গোলাম হোসেন বলেন, প্রথাগত সাংবাদিকতার পরিবর্তে এ দৈনিকের প্রধান লক্ষ্য হলো দেশের ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প এবং কৃষিখাতকে তুলে ধরা।

তিনি বলেন, সরকার সব কিছু করে দেবে, এমন মানষিকতা থেকে আমাদের বেরিয়ে আসতে হবে। সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে আমরা অংশীদার হতে চাই।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পত্রিকাটির সম্পাদক সাজ্জদুর রহমান, ঢাকাস্থ ফিলিপাইন দূতাবাসের অ্যাটাচে লরেন এস আর্চ, পাকিস্তান হাইকমিশনের কাউন্সেলর মুহাম্মদ আওরঙ্গজেব হারালসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের নেতৃবৃন্দ।

অর্থসূচক/এনএইচ/কেএসআর

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো
মন্তব্য
Loading...