ফের ঘরের মাঠে হোয়াইটওয়াশ শ্রীলঙ্কা

0
158

দিলরুয়ান পেরেরার বল মিড অনে ঠেলে দিয়ে জয়োল্লাস মেতে উঠলেন ডম সিবলি। অপর প্রান্ত থেকে দৌঁড়ে এসে সিবলিকে জড়িয়ে ধরলেন জস বাটলার। ৬ উইকেটের জয় নিয়ে শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিলো ইংল্যান্ড। সেই সঙ্গে ২০১৯ সালের পর আবারও ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশ হলো শ্রীলঙ্কা।

শুধু তাই নয়, নিজেদের সর্বশেষ দুই সিরিজেই ধবলধোলাই হলো লঙ্কানরা। এর আগে করোনাকালীন নিজেদের প্রথম সফরে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ২-০ ব্যবধানে হেরেছিল মিকি আর্থারের শিষ্যরা। টেস্টে রীতিমত হোয়াইটওয়াশের বৃত্তে ঘুরপাক খাচ্ছে শ্রীলঙ্কা। সাদা পোষাকে সর্বশেষ ২০২০ সালের জানুয়ারিতে জয় পেয়েছিল লঙ্কানরা।

মাত্র ১৬৪ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে বরাবরের মতোই ধুঁকছিল ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। প্রথম ইনিংসে ৭ উইকেট নেয়া লাসিথ এম্বুলদেনিয়াকে সামাল দিতে রীতিমত বেগ পোহাতে হয়েছে জ্যাক ক্রলি-ড্যান লরেন্সদের। এদিনও শ্রীলঙ্কার তুরুপের তাস হয়ে উঠেছিলেন এই বাঁহাতি স্পিনার। দ্বিতীয় ইনিংসেও ৩ উইকেট নিয়েছেন তরুণ এই স্পিনার।

যার শুরুটা হয়েছিল ক্রলিকে দিয়ে। দলীয় ১৭ রানের সময় ১৩ রান করা ক্রলিকে ফিরিয়েছিলেন এম্বুলদেনিয়া। ক্রলির বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন জনি বেয়ারস্টো এবং সিবলি। তাঁদের জুটিতেও গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন সেই এম্বুলদেনিয়া। ২৮ বলে ২৯ রান করা বেয়ারস্টোকেও ফেরান এই স্পিনার।

প্রথম ইনিংসে ১৮৬ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেললেও দ্বিতীয় ইনিংসে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি জো রুট। ১৬ বলে ১১ রান করা ইংলিশ দলপতিকে ফেরান অভিষিক্ত রমেশ মেন্ডিস। এরপর মাত্র ২ রান করে ফিরে গেছেন লরেন্স। ৮৯ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে আবারও ইংল্যান্ডের ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ার শঙ্কা জেগেছিল।

যদিও সেটা সামলে নিয়েছেন সিবলি ও বাটলার। শুধু সামলেই নেননি সেই সঙ্গে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন তাঁরা দুজন। ৬ উইকেটে জয় পাওয়ার দিনে ৫৬ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছেন সিবলি। তাঁকে সঙ্গে দেয়া বাটলার ওয়ানডে মেজাজে খেলেছেন ৪৮ বলে অপরাজিত ৪৬ রানের ইনিংস।

এর আগে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের সেঞ্চুরি ও নিরোশান ডিকওয়েলার ৯২ রানের ইনিংসের উপর ভর করে ৩৮১ রান সংগ্রহ করেছিল শ্রীলঙ্কা। ইংল্যান্ডের হয়ে মাত্র ৪০ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন জেমস অ্যান্ডারসন। এরপর নিজেদের প্রথম ইনিংসে এম্বুলদুনিয়ার স্পিন ঘূর্ণিতে ৩৪৪ রানে থেমেছিল ইংলিশরা। ৩৭ রানের লিড নিয়েও দ্বিতীয় ইনিংসে সুবিধা করতে পারেননি স্বাগতিকরা। দুই স্পিনার জ্যাক লিচ ও ডম বেসের স্পিনে মাত্র ১২৬ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। তাতে সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে জয় তুলে নেয় ইংলিশরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
শ্রীলঙ্কা (প্রথম ইনিংস): ৩৮১/১০ (ম্যাথুস ১১০, ডিকওয়েলা ৯২, পেরেরা ৬৭, চান্দিমাল ৫২, অ্যান্ডারসন ৬/৪০)
ইংল্যান্ড (প্রথম ইনিংস): ৩৪৪/১০ (রুট ১৮৬, বাটলার ৫৫, এম্বুলদুনিয়া ৭/১৩৭)
শ্রীলঙ্কা (দ্বিতীয় ইনিংস): ১২৬/১০ ( এম্বুলদুনিয়া ৪০, মেন্ডিস ১৬, পেরেরা ১৪, ডম বেস ৪/৪৯, লিচ ৪/৫৯)
ইংল্যান্ড (দ্বিতীয় ইনিংস): ১৬৪/৪ (সিবলি ৫৬*, বাটলার ৪৬*, বেয়ারস্টো ২৯, এম্বুলদুনিয়া ৩/৭৩)

 

অর্থসূচক/এএইচআর