নীরবেই মালিঙ্গা অধ্যায়ের সমাপ্তি

0
109
লাসিথ মালিঙ্গা। ছবি সংগৃহীত

ঝুলিতে ১৭০ উইকেট নিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) সফলতম বোলারটির নাম লাসিথ মালিঙ্গা। যদিও টুর্নামেন্টের ১৪তম আসর থেকেই আর দেখা যাবে না মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের ঘরের ছেলেকে। ইয়র্কার দিয়ে ব্যাটসম্যানদের স্ট্যাম্প উড়িয়ে বুনো উল্লাসে মাতেন যে পেসার, তিনিই কিনা বিদায় জানালেন চুপিসারে।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) আইপিএলের দলগুলোর পরের আসরের ধরে রাখা ক্রিকেটারদের তালিকা জমা দেওয়ার শেষ সময় ছিলো। মুম্বাইয়ের তালিকায় দলের সেরা তারকার নাম না দেখে অবাক হয়েছিলেন অনেকেই।

বাংলাদেশের বিপক্ষে দেশের জার্সি গায়ে ২০১৯ সালের ২৬ জুলাই ওয়ানডে ক্রিকেটে সর্বশেষ মাঠে নেমেছিলেন মালিঙ্গা। সেবারও তার অবসরের সিদ্ধান্ত সকলকে জানিয়েছিলেন অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নে। আর লিগের অবসরের সিদ্ধান্ত তিনি জানালেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলের মাধ্যমে।

মুম্বইয়ের ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে, ‘মালিঙ্গা ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটথেকে অবসর নিতে চেয়েছেন। সেই কারণেই তাঁর সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে আইপিএল ২০২১ এর জন্য মুম্বইয়ের ১৮ জনের ঘোষিত রিটেন তালিকায় থেকে মালিঙ্গার নাম বাইরে রাখা হয়েছে।’

মুম্বাইয়ের সঙ্গে ওতোপ্রতোভাবে জড়িয়ে ছিলেন মালিঙ্গা। ২০১৮ সালে খেলোয়াড় হিসেবে না থাকলেও ছিলেন পরামর্শকের দায়িত্বে। পরের মৌসুমেই আবার ২২ গজে ফিরেই দলটির চতুর্থ শিরোপা জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন।

আইপিএলের সর্বশেষ আসরে ব্যক্তিগত কারণে খেলেননি মালিঙ্গা। আর পরের আসরেও ভ্রমণ বিধি নিষেধের সম্ভাবনা রয়েছে। আর এ কারণেই এই সময়কেই অবসরের আদর্শ সময় ভেবেছেন এই পেসার। আর বিদায় বেলায় নিজের আরেক পরিবার মুম্বাইকে ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানাতে ভোলেননি তিনি।

মালিঙ্গা বলেন, পরিবারের সঙ্গে আলোচনার পর আমার মনে হয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট থেকে অবসরের এটাই সঠিক সময়। মহামারী পরিস্থিতি ও ভ্রমণে বিধিনিষেধের কারণে আমার পক্ষে আগামী মৌসুমে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট খেলা কঠিন। তাই এখনই সিদ্ধান্ত নেওয়ার ভালো সময়। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও এই বিষয়ে কথা বলেছি। তারা আমার কথা বুঝতে পেরেছে এবং আমাকে সমর্থন করেছে। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে যুক্ত প্রত্যেককে এবং দুর্দান্ত ১২টি বছর কাটানোর জন্য সমর্থকদের ধন্যবাদ জানাই।

টি-টোয়েন্টির এই ফেরিওয়ালা আইপিএল ছাড়া সিপিএলে জ্যামাইকা তালাওয়াস, গায়ানা অ্যামাজন ওয়ারিয়র্সের হয়ে খেলেছেন বিপিএলেও পরেছে তার পদচিহ্ন। খুলনা টাইটান্স, রংপুর রাইডার্সের সাজঘরে ছিলেন তিনি। আর অস্ট্রেলিয়ান বিগ ব্যাশে মেলবোর্ন স্টার্সের হয়ে মাঠ মাতিয়েছেন। ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে মালিঙ্গার পকেট ভারি হয়েছে ৩৯০ উইকেট নিয়ে। যা ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

দেশের ওয়ানডে দলকে বিদায় বললেও টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে এখনও তিনি অবসর নেননি। ফলে ২০২১ সালে ভারতের মাটিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তাকে শ্রীলঙ্কার জার্সিতে খেলতে দেখার সম্ভাবনা এখনই মিলিয়ে দেয়া যাচ্ছে না।

 

অর্থসূচক/এএইচআর