ছোট্ট মেয়ের কুকিজ বিক্রির বিজ্ঞাপন দেখে তাজ্জব নেটিজেনরা

অর্থসূচক ডেস্ক

0
191

জিনিসপত্র তৈরি করা যত না পরিশ্রমের, তার চেয়ে ঢের কঠিন তা বিক্রি করা। ঠিকমতো বিজ্ঞাপন, প্রচার- এসব করতে না পারলে খদ্দের পাওয়া যে কী কঠিন, তা জানেন কেবল ভুক্তভোগীরাই। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রে ছোট্ট এক মেয়ে নিজের তৈরি কুকিজ বিক্রি করতে যে পন্থা নিল, তা দেখে তাজ্জব নেটিজেনরা। কাজও হয়েছে ভালই। হু হু করে বিকিয়েছে তার তৈরি কুকিজ।

যুক্তরাষ্ট্রের গার্ল স্কাউটের সদস্য অ্যারিজোনার অ্যালি শ্রয়ার। বয়স বড়জোর পাঁচ কি ছয়। সবে ফার্স্ট গ্রেডের ছাত্রী সে। কিন্তু এই বয়সেই সে স্কাউটে কুকিজ তৈরির ওয়ার্কশপে যোগ দিয়ে দারুণ সব কুকিজ বানিয়ে ফেলেছে। এরপর তা বিক্রির পালা। বিক্রির অর্থ স্কাউটের সদস্যদের পড়াশোনা এবং অন্যান্য উন্নয়নের কাজে দেওয়ার কথা। আর নিজের তৈরি প্রথম সামগ্রী বিক্রির জন্য কীভাবে অ্যালি বিজ্ঞাপন করল, জানেন?

বাড়ির ডোরবেলের কাছে অ্যালি সাজিয়ে রাখল নানা রঙের কয়েকটি কুকিজ। যাতে তা সহজে চোখে পড়ে সকলের। এখানেই শেষ নয় তার প্রচেষ্টা। এরপর ডোরবেলটি বাজালে ভেসে আসবে অ্যালির কণ্ঠস্বর। সে বলছে, আমি অ্যালি। তোমরা কি কেউ কুকিজ কিনতে চাও? মাত্র ৫ ডলারেই পাবে একেকটা কুকিজ। ২, ৩টি কিংবা ১০, ১২টা, কটা কিনবে? যে ক’টাই কেনো, আমার কাছে সেটাই অনেক। দেখো, তোমাদের পছন্দমতো রংও আছে। যেটা ইচ্ছে করে, বেছে নাও।

ছোট্ট মেয়ের মিষ্টি গলা শুনে কেউ আর মুখ ফিরিয়ে চলে যাচ্ছেন না। সবাই কিছু না কিছু কুকিজ কিনছেন।

মেয়ের এহেন বিজ্ঞাপনের একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন অ্যালির মা। তিনি জানিয়েছেন, মেয়ের এই আবেদনে ভালই সাড়া পড়েছে। প্রথম দিনেই ২০০টি কুকিজ বক্সের অর্ডার পেয়েছে সে। আর বাক্সগুলো রঙিন হওয়ায় তা ক্রেতাদের আরও আকর্ষণ করছে। এভাবে বিক্রি হওয়া কুকিজের অর্থ যাবে গার্ল স্কাউটের কল্যাণে।

অর্থসূচক/কেএসআর