রেকর্ড চুরমার করে জিতল ভারত

0
155

ব্রিসবেন টেস্টের তখনও শেষ দিনের খেলা এখনও অনেক ওভার বাকি। জয়ের জন্য অস্ট্রেলিয়াকে তখনও ফেরাতে হতো ভারতের সাত ব্যাটসম্যানকে। সেটা করতে না পারার আক্ষেপ হয়তো পোড়াচ্ছে মিচেল স্টার্ক-প্যাট কামিন্সদের। তার চেয়ে বেশি পোড়াচ্ছে হয়তো টিম পেইনকে। অজি অধিনায়ক যেটা করেছেন সেটা রীতিমত অপরাধই বলা যায়। দিনের শেষ বিকেলে তখন ৬৯তম ওভারের খেলা চলছে।

নাথান লায়নকে স্টেপ আউট করে মারতে এসে বলের লাইন মিস করে বসেন ঋষভ পান্ত। ক্রিজ থেকে অনেকটা বেড়িয়ে গিয়েছিলেন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। তাঁর ফিরতে এতটাই দেরি হয়েছিল যে পেইন চাইলে বেশ কয়েকবারই পান্তের উইকেট উপরে ফেলতে পারতেন। যদিও বল তালুবন্দি করতে না পারায় ফসকে যায় পান্তের উইকেট। ফলে কপাল পুড়ে অস্ট্রেলিয়ার। কারণ পান্ত যখন স্টাম্পিং থেকে বেচে যান তখন তিনি অপরাজিত ছিলেন মাত্র ১৬ রানে। সেই পান্তই কি-না শেষ পর্যন্ত ব্রিসবেন টেস্টের নায়ক বনে গেছেন। সিডনি টেস্টের মতো এদিনও খলনায়ক বনে গেছেন অধিনায়ক পেইন।

ব্রিসবেনের গ্যাবায় অস্ট্রেলিয়ার দেয়া রেকর্ড ৩২৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করে ৩ উইকেটে জিতেছে ভারত। এর ফলে বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি ২-১ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে আজিঙ্কা রাহানের দল। ১৯৫১ সালে ব্রিসবেন টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২৩৬ রান তাড়া করে জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া। এবার সেই রেকর্ড ভেঙেই জিতেছে ভারতীয়রা। এ ছাড়া ১৯৮৮-র পর এবারই প্রথম ব্রিসবেনে টেস্ট হারার স্বাদ পেলো ভারত। পাহাড় সমান লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪ রান তুলে চতুর্থ দিন শেষ করেছিল ভারত। পঞ্চম দিন দলীয় ১৮ রানের মাথায় ওপেনার রোহিত শর্মাকে হারায় ভারত। তিনি প্যাট কামিন্সের বলে উইকেটের পেছনে টিম পেইনকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন।

এরপর ভারতের ইনিংস টেনে নেন শুভমন গিল এবং চেতেশ্বর পূজারা। ৯১ রানে গিল ফিরলে এই দুজনের জুটি ভাঙে। গিল এগুচ্ছিলেন প্রথম সেঞ্চুরির দিকে। তাকে থামান ন্যাথান লায়ন। ১৪৬ বলে ৮ চার, ২ ছক্কায় স্লিপে ধরা পড়েন সিরিজে ভারতের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক। উইকেটে বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি ভারতের অধিনায়ক রাহানে। তিনি কামিন্সের দ্বিতীয় শিকার হন। এর খানিক পর আউট হয়ে যান দারুণ খেলতে থাকা পূজারাও। তিনি ২১১ বলে ৫৬ রানের দৃঢ়চেতা ইনিংস খেলেছেন। তাঁকেও ফিরিয়েছেন পান্ত। শেষ দিকে নেমে ওয়াশিংটন সুন্দর ২৯ বলে ২২ রানের কার্যকরী ইনিংস খেলেছেন। যদিও শার্দুল দ্রুত আউট হয়ে ফিরলে কিছুটা চাপে পরে ভারত। সেখান থেকে নবদীপ সাইনিকে নিয়ে ভারতকে জিতিয়ে ফেরেন পান্ত।

ব্রিসবেন টেস্টের প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া অল আউট হয়েছিল ৩৬৯ রান করে। জবাবে খেলতে নেমে ৩৩৬ রানে থামে ভারতের ইনিংস। ৩৩ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া যোগ করে আরও ২৯৪ রান। এরপর ৩২৮ রানের লক্ষ্য পেতে ৭ উইকেট হারিয়েই জয়ের বন্দরে পৌছে গেল ভারত।

অর্থসূচক/এএইচআর