রাজশাহীতে আ.লীগ-বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে আহত ১৩

0
60

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দলীয় ও বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে দফায়-দফায় সংঘর্ষ, অগ্নিসংযোগ এবং ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয়পক্ষের প্রায় ১৩ জন আহত হয়।

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) রাতে পৌর এলাকার তালতলায় দলীয় প্রার্থীর পক্ষে জনসংযোগে অংশ নিয়ে কাটাখালী পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আব্বাস আলী আড়ানী পৌরসভায় দলের বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তার আলীর বিপক্ষে বক্তব্য দেওয়ায় এই সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

সংঘর্ষকালে পিস্তলের ছয়টি ফাঁকা গুলি এবং আট থেকে দশটি ককটেল বিস্ফোরণ হয় বলে দাবি করেছে প্রত্যক্ষদর্শীরা। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা ও চারঘাট সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) নুরে আলম ঘটনাস্থলে অবস্থান নেন। এ সময় বাঘা ছাড়াও চারঘাট ও পুঠিয়া থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ এবং রাজশাহী থেকে র‌্যাব এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আড়ানী পৌরসভায় আওয়ামী লীগদলীয় মেয়র পদপ্রার্থী শহীদুজ্জামান শাহীদ জানান, মুক্তারের সমর্থকদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার ভাগ্নে তুষার (২৮) আহত হয়েছেন। তাকে সংকটাপন্ন অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শাহীদের দাবি, বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় আড়ানী পৌর সদরের তালতলা বাজারে তার পথসভায় দলের বহিষ্কৃত স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী মুক্তার আলীর কর্মী-সমর্থকেরা গুলি ও বোমা হামলা চালিয়েছে। এ সময় তার নির্বাচনী ও ব্যক্তিগত কার্যালয়ে ভাঙচুর এবং অগ্নিসংযোগ করেছেন মুক্তারের কর্মী-সমর্থকের।

অপরদিকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তার আলীর দাবি, আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের হামলায় তিনি নিজেসহ তার কর্মী নাজমুল হক, রানা, বকুল, মজনু, খোকন, ফারুক, জিসান, হৃদয়, জাহিদ, রাজু ও আরিফুল আহত হয়েছে। এদের মধ্যে নাজমুলের অবস্থা গুরুতর।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, উপজেলা প্রশাসনসহ পুলিশ এবং র‌্যাব এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছে। রাতে মুক্তার আলীর কর্মী মিলনকে আটক করা হয়েছে।

রাজশাহীর পুলিশ সুপার (এসপি) এবিএম মাসুদ হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। যারা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অর্থসূচক/কেএসআর