সুহৃদ কী পারবে বাজারের ‘সুহৃদ’ হতে?

0
79
medicine-packs
ওষুধের ব্লিস্টার প্যাক
medicine-packs
ওষুধের ব্লিস্টার প্যাক

আজ সোমবার দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জে শুরু হবে সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ার লেনদেন। গত এপ্রিল মাসে প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন পায় কোম্পানিটি। ১ কোটি ৪০ লাখ শেয়ার বিক্রির উদ্দেশ্যে জুনে বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আবেদনপত্র গ্রহণ করে। ১০ টাকা অভিহিত মূল্যে শেয়ার ইস্যু করে বাজার থেকে ১৪ কোটি টাকা সংগ্রহ করে সুহৃদ।

সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ পলিপ্রোপাইলিন (Polypropylyne-PP) ও (Poly Vinyl Chloride-PVC) পণ্য উৎপাদন করে থাকে।এর প্রধান দুটি উৎপাদন লাইন হচ্ছে ওষুধ শিল্পের পিভিসি ফিল্ম ও খাদ্য প্যাকেটজাত করার পিপি/পিভিসি শিট উৎপাদন করে।ওষুধ কারখানায় পিভিসি ফিল্ম থেকে ট্যাবলেট ও ক্যাপসুলের স্ট্রিপ তৈরি করা হয়। অন্যদিকে পিপি শিট থেকে তৈরি করা হয় ওয়ানটাইম গ্লাস, প্লেট, চামচ, ওয়াটার কাপ, আইস কাপ, টিফিন বক্স ইত্যাদি।

কোম্পানির পরিশোধিত মূলধন ৫০ কোটি টাকা।আইপিওর আগে পরিশোধিত মূলধন ছিল ৩১ কোটি ৩৫ লাখ টাকা।আইপিও’র পর মূলধন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৫ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। ৫০০ শেয়ার নিয়ে এর মার্কেট লট।

আইপিও থেকে সংগ্রহ করা অর্থের ৩১.২৬% দিয়ে ব্যাংক ঋণ পরিশোধ করবে কোম্পানিটি, যার পরিমাণ ৪ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। নতুন বিল্ডিং নির্মাণে ব্যয় হবে ১৩.২৫% অর্থ।আর ২৩.৬৭% অর্থ ব্যয় করা হবে নতুন মেশিনারিজ ও গ্যাস জেনারেটর কেনার জন্য।

৩০ জুন ২০১৩ তারিখে সমাপ্ত হিসাব বছর শেষে কোম্পানির শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য বা এনএভি দাঁড়ায় ১৪ টাকা ১১ পয়সা। আর শেয়ার প্রতি আয় বা এনএভি ১ টাকা ৯ পয়সা।

সর্বশেষ বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ-২০১৪) কোম্পানি শেয়ার প্রতি আয় করেছে ২৪ পয়সা। আইপিও পরবর্তী শেয়ার সংখ্যা বিবেচনায় নিলে এর পরিমাণ দাঁড়ায় ১৬ পয়সা।আর ৯ মাসে ইপিএস হয় ৫৬ পয়সা।এ হিসেবে এন্যুয়ালাইজড ইপিএস দাঁড়ায় ৭৯ পয়সা।