নতুন আইপিও পদ্ধতির ইনস্ট্রাকশন ফরমে যা আছে

0
257
ipo
আইপিও
new-ipo-instruction-1
আইপিও আবেদনের নতুন পদ্ধতির নির্দেশনা ফরম। বিনিয়োগকারীর হিসাবে প্রয়োজনীয় অর্থ জমা থাকলে এ ফরম পূরণের মাধ্যমে নির্দেশনা দেওয়া যাবে

আগ্রহ ও উদ্বেগকে সঙ্গী করে চলতি মাসেই শুরু হচ্ছে আইপিও আবেদনের নতুন পদ্ধতির পাইলট প্রকল্প। হামিদ ফেব্রিকসের প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে এ প্রকল্প শুরু হবে। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত আবেদন জমা নেওয়া হবে। প্রচলিত পদ্ধতিতে ব্যাংকে আবেদন ও টাকা জমা দেওয়ার পাশাপাশি নির্ধারিত ব্রোকারহাউজ ও মার্চেন্ট ব্যাংকের মাধ্যমেও তা জমা দেওয়া যাবে।

নতুন পদ্ধতি নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে রয়েছে ব্যাপক আগ্রহ। ব্যাংকে লাইন ধরে আবেদনপত্র জমা দেওয়ার দুর্ভোগ থেকে মুক্তি মিলবে বলে অনেকেই বেশ উচ্ছ্বসিত। আবার অনেকে আছেন দ্বিধা ও উদ্বেগে। আবার আবেদনের পদ্ধতির বিস্তারিত জানা না থাকায় অস্বস্তিও আছে অনেক বিনিয়োগকারীর মনে।

নতুন পদ্ধতিতেও একটি আবেদনপত্র/নির্দেশনাপত্র (Instruction Form) পূরণ করতে হবে সংশ্লিষ্ট বিনিয়োগকারীকে। সে আবেদনপত্রে থাকবে আবেদনকারীর নাম, বিও নাম্বার, ক্লায়েন্ট কোড, কতগুলো শেয়ারের জন্য আবেদন করা হচ্ছে তার সংখ্যা, টাকার পরিমাণ এবং ক্যাটাগরি।

মুদ্রিত আবেদনপত্রের পাশাপাশি ইলেকট্রনিক আবেদনপত্রেও আবেদন করা যাবে।সে ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ব্রোকারহাউজ বা মার্চেন্ট ব্যাংক গ্রাহকের হয়ে আবেদনপত্র পূরণ করবে। বিনিয়োগকারী ই-মেইলে বা মোবাইল ফোনে এসএমএসের মাধ্যমে এ বিষয়ে তার ডিপি (ডিপোজিটরি পার্টিসিপেন্ট) তথা ব্রোকারহাউজ ও মার্চেন্ট ব্যাংককে নির্দেশনা দিতে পারবেন।

new-ipo-instruction
আইপিও আবেদনের নতুন পদ্ধতির নির্দেশনা ফরম। বিনিয়োগকারীর হিসাবে প্রয়োজনীয় অর্থ জমা না থাকলে এ ফরম পূরণের মাধ্যমে নির্দেশনা দিতে হবে

ইতোমধ্যে নতুন পদ্ধতির জন্য দুটি পৃথক ফরম তৈরি করা হয়েছে। বিনিয়োগকারীর হিসাবে আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ জমা থাকলে এর একটি ফরম পূরণ করে নির্দেশনা দিতে হবে। এর নাম রেগুলার ক্লায়েন্টস ডেবিট ইনস্ট্রাকশন (Regular Clients Debit Instruction Form)।

আর টাকা না থাকলে ক্যাশ ডিপোজিট ফরম (Cash Deposit Form) পূরণ করে আবেদনের জন্য নির্দেশনা দিতে হবে বিনিয়োগকারীকে। এ ক্ষেত্রে ফরমের সঙ্গে ডিপির কাছে প্রযোজ্য অর্থও জমা দিতে হবে।

ডিপির সঙ্গে আস্থা ও বোঝাপড়া ভালো থাকলে প্রতিবার মুদ্রিত ফরম পূরণ না করেও আইপিওতে আবেদন করা যাবে। এ ক্ষেত্রে ডিপি গ্রাহকের কাছ থেকে ফরমে আগাম সই নিয়ে রাখবেন। এতে ইস্যুয়ারের নাম ও টাকার পরিমাণ ফাঁকা থাকবে। গ্রাহকের নির্দেশনা অনুসারে সংশ্লিষ্ট কোম্পানির নাম ও টাকার পরিমাণ উল্লেখ করে ডিপি তার আনুষ্ঠানিকতা শেষ করবেন। এ ক্ষেত্রে গ্রাহক টেলিফোন, এসএমএস ও ই-মেইলে আবেদনের জন্য নির্দেশনা দিতে পারবেন। তবে তার হিসাবে অবশ্যই প্রয়োজনীয় অর্থ থাকতে হবে।