মিডফোর্ডে অচলাবস্থা

0
60
Midford hospital
স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মিডফোর্ড হাসপাতাল।

নার্সকে ইন্টার্ন চিকিত্সক লাঞ্ছিত করেছেন এমন অভিযোগের পর থেকে বন্ধ রয়েছে পুরান ঢাকার মিটফোর্ড হাসপাতালের চিকিত্সা সেবা। চরম দুর্ভোগে পড়েছেন হাসপাতালে ভর্তি ও আউটডোরের রোগীরা। সেখানে ভর্তি হওয়া রোগীদের স্থানান্তর করছেন তাদের স্বজনেরা। চিকিৎসাহীন ভাবে ফেরত যাচ্ছেন সেবা নিতে আসা নতুন রোগীরাও।

Midford hospital
স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মিডফোর্ড হাসপাতাল।

গতকাল শনিবার থেকে কর্মবিরতি পালন করা নার্সদের বিচারের আশ্বাস দেওয়া হলে রোববার দুপুরে তারা কাজে যোগ দেন। এ সময় আগামী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কর্মসূচি স্থগিতের কথা জানিয়েছেন তারা। তবে রোববার দুপুর থেকে কর্মবিরতিতে গেছেন ইন্টার্ন চিকিত্সকেরা।

হাসপাতালের সেবক আবদুল মান্নান জানান, গতকাল শনিবার গাইনি ওয়ার্ডে রফিকুল ইসলাম নামের এক ইন্টার্ন চিকিত্সক বকুল রানী বিশ্বাস নামের জ্যেষ্ঠ নার্সকে লাঞ্ছিত ও মারধর করেছিলেন। এর বিচারের দাবিতে গতকাল দুপুর থেকে নার্সরা কর্মবিরতির ঘোষণা দেন।

নার্সদের অভিযোগ, অস্ত্রোপচার টেবিলে রোগী থাকা সত্বেও ইন্টার্ন চিকিত্সক রফিকুল তার আত্মীয়কে সেবা দেওয়ার জন্য নার্স বকুলকে নির্দেশ দেন। এতে আপত্তি জানালে ওই ইন্টার্ন চিকিত্সক প্রথমে নার্সকে গালমন্দ করেন, পরে মারধর করেন।

ইন্টার্ন চিকিত্সকদের মুখপাত্র ইফতেখার আমিনের দাবি, নার্সদের অভিযোগ পুরোপুরি ঠিক নয়। ওই চিকিত্সককে আত্মপক্ষ সমর্থন করতে না দিয়ে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। তারপরও ইন্টার্ন চিকিত্সকেরা কাজ করেছেন। তবে আজ নার্সরা হাসপাতালের ভাণ্ডারে তালা দেওয়ায় ইন্টার্নরা সেবা দিতে পারছেন না। তাই ইন্টার্ন চিকিত্সকেরা দুপুর ১২টা থেকে কর্মবিরতি শুরু করেছেন।

চিকিত্সকেরা অভিযোগ করেন, নার্স বকুল চিকিত্সকের কথা না শুনে উল্টো তাকে নাজেহাল করার চেষ্টা করেছিলেন।

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জাকির হোসেন জানান, নার্সদের কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়ার পর ওই ইন্টার্ন চিকিত্সককে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। ঘটনা তদন্তে একজন অধ্যাপককে প্রধান করে ৪ সদস্যের কমিটি করা হয়েছে।

এমই/