মহানবীর রওজা সরানোর খবর নাকচ

0
89
masjid-nabawi-2
মসজিদে নববী
masjid-nabawi-2
মসজিদে নববী

পশ্চিমা সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর রওজা মোবারকমসজিদে নববী থেকে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা সংক্রান্ত প্রতিবেদন তীব্রভাবে প্রত্যাখান করেছে এর তত্ত্বাবধানে নিয়োজিত দ্য প্রেসিডেন্সি অব টু হলি মস্কস।

সৌদি আরবের সংস্থাটির এক মুখপাতের বরাত দিয়ে শুক্রবার এক খবরে আরব নিউজ জানিয়েছে, প্রস্তাবটি নেহাত একজন গবেষকদের ব্যক্তিগত মতামত।

আহমেদ আল মানসুরি নামের এই মুখপাত্র বলেন, গবেষণায় এক গবেষক মতামত ব্যক্ত করেছেন। এই মত দ্য প্রেসিডেন্সি অব টু হলি মস্কস কিংবা সৌদি সরকারের মতামতকে প্রতিফলিত করে না।

তিনি পবিত্র স্থান সম্পর্কে স্পর্শকাতর গবেষণা এবং সংবাদ প্রকাশের আগে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান।

প্রেসিডেন্সি চার্টারে এ ধরনের কাজ সংক্রান্ত একটি বিধান অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে বলেও জানান আল মানসুরি ।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম দ্য ইন্ডিপেনডেন্টে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর রওজা মোবারক মসজিদে নববী থেকে সরিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছেউল্লেখ করে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

এতে বলা হয়, মসজিদে নববীর তদারকদের কাছে পাঠানো কনসালটেশন ডকুমেন্টে এমন প্রস্তাবনা রয়েছে। সৌদি আরবের এক শীর্ষস্থানীয় আলেম প্রথম এই পরিকল্পনার কথা ফাঁস করেন।

৬১ পৃষ্ঠার ওই ডকুমেন্টে মুহাম্মদ (সা.) এর দেহাবশেষ সৌদি আরবের মদিনায় অবস্থিত মসজিদে নববী থেকে জান্নাতুল বাকী কবরস্থানে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তাব রয়েছে।

ইন্ডিপেনডেন্ট প্রতিবেদনে আরও জানায়, মসজিদের তদারকদের জার্নালে ইতোমধ্যেই এ প্রস্তাবনার কিছু অংশ প্রকাশ করা হয়েছে। এতে মহানবীর রওজার আশপাশের কক্ষগুলো ভেঙ্গে ফেলার কথা বলা হয়েছে। এ কক্ষগুলো তাঁর কন্যারা এবংস্ত্রীরা ব্যবহার করতেন।

সৌদি সংবাদ মাধ্যম ‘মক্কা’র প্রধান সম্পাদক মোয়াফাক আল নুয়াইসের বরাত দিয়ে আরব নিউজ আরও জানিয়েছে, এই খবর প্রকাশকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।

আল নুয়াইসের বলেন, আমরা ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যমটির বিরুদ্ধে আইনী পদক্ষেপ নেওয়া সংক্রান্ত বিষয়গুলো খতিয়ে দেখছি।