টাকার অতিমূল্যায়নে রপ্তানিখাত ক্ষতিগ্রস্ত

0
52
Chittagong Sea Port
ছবি: চট্টগ্রাম বন্দর (ফাইল ছবি)
Chittagong Sea Port
ছবি: চট্টগ্রাম বন্দর (ফাইল ছবি)

টাকার অতিমূল্যায়নে রপ্তানি খাত বিশেষ করে তৈরি পোশাকখাত ক্ষতির মুখে। এতে দেশের পোশাক শিল্প আর্ন্তজাতিক বাজারে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ছে বলে মনে করেন রপ্তানিকারকরা। আর এর সুযোগ নিয়ে প্রতিবেশী দেশ ভারত বেশি লাভবান হচ্ছে।

রপ্তানিকারকরা বলছেন, আগে ৮ ডলারে কোনো পণ্য রপ্তানি করলে যে পরিমাণ টাকা পাওয়া যেতো তা পেতে হলে রপ্তানি মূল্য বাড়িয়ে করতে হবে সাড়ে ৮ ডলার। কিন্তু এ বাড়তি দরে পণ্য নিতে আগ্রহী নয় বিদেশী ক্রেতারা। এতে রপ্তানি ব্যাহত হচ্ছে।

বাংলাদেশী মুদ্রার অতিমূল্যায়ন হলেও ভারতে ডলারের বিপরীতে কমছে রুপির দাম। দেশটিতে গত এক বছরে রূপির প্রায় ২০ শতাংশ অবমূল্যায়ন হয়েছে।

রপ্তানিকারকরা বলছেন, এই অস্বাভাবিকতার কারণে বাংলাদেশের রপ্তানি বাণিজ্যে প্রভাব পড়ছে। প্রতিযোগিতামুলক আন্তর্জাতিক বাজারে সক্ষমতা কমে আসছে। তাতে বিশেষকরে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে তৈরি পোশাক রপ্তানিকারকরা। একটু কম দরে পোশাক কিনতে পারায় বহু ক্রেতা ভারতের দিকে ঝুঁকছে বলেও মনে করছেন তারা।

এই সব রপ্তানিকারকদের দাবি রপ্তানির স্বার্থে তাদের জন্য আলাদা মূল্য নির্ধারণ করা হোক। কিংবা বাজার দর ছাড়া দুই টাকা বেশিতে মূল্য নিরুপণ করা হোক। যাতে ব্যবসায়ীরা প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে পারেন।

বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) সহ-সভাপতি শহীদুল্লাহ আজীম অর্থসূচককে জানান, একই সময়ে ভারতের রুপির দরপতন আর বাংলাদেশের টাকা অতিমূল্যায়ন হচ্ছে। এতে মূলত এদেশের রপ্তানিকারকরা ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। বিশ্ববাজারে প্রতিযোগিতার সক্ষমতা কমে আসছে। আবার সেখানে ভারত সুবিধা পেয়ে রপ্তানি বাড়াতে পারছে।

আর নীট পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতির সহ-সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম অর্থসূচককে বলেন, বাংলাদেশের টাকার অতিমূল্যায়নের চেয়ে বেশি ক্ষতি হচ্ছে ভারতের রূপির অবমূল্যায়নের জন্য। আমাদের পোশাক শিল্পে এখন বড় প্রতিযোগী হচ্ছে ভারত। তারা এই সুবিধা পাওয়ার কারণে রপ্তানি বৃদ্ধি করছে। আমরা চেয়েছিলাম সরকার রপ্তানিকারকদের আলাদা একটি হার নির্ধারণ করে দিক কিংবা বাজার দরের চেয়ে ২ টাকা বেশি মূ্ল্যায়ন করুক। তবে সরকার এই বিষয়টি কোনো ভাবেই বিবেচনায় আনেননি।

২০১৩ সালে জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ে ডলারের বিপরীতে টাকার অতিমূল্যায়ন হয়েছে ১ টাকা ১০ পয়সা। আর ২০১৪ সালের জানুয়ারি থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত সময়ে এই অতিমূল্যায়নের পরিমাণ ৩৫ পয়সা।