নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করছে সরকার: আমু

0
71
textech
বুধবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১৫তম টেক্সটেক আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী আমীর হোসেন আমু।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতে প্রায় ৪৪ লাখ শ্রমিক নিয়োজিত। এর প্রায় ৮০ শতাংশ নারী। এতেই বুঝা যাচ্ছে, নারীর ক্ষমতায়ন নিশ্চিতে কাজ করে যাচ্ছে সরকার।

textech
বুধবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১৫তম টেক্সটেক আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথিরা।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১৫তম টেক্সটেক আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, এ ধরনের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনীর মাধ্যমে বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যান্য দেশে পরিচিতি লাভ করবে। বিশ্বের সব দেশে নিজেদের পোশাক খাতসহ অন্যান্য খাতের প্রসার লাভ সম্ভব।

তিনি বলেন, এই ধরনের মেলার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশের সরাসরি বাণিজ্য প্রসারিত হবে। বাংলাদেশের এই মেলায় বিশ্বের উন্নত দেশগুলো অংশগ্রহণ করলে তারাও লাভবান হবে।

বিকেএমইএ’র প্রথম সহ-সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম বলেন, মাত্র এক বছরের জন্য বৈদেশিক ঋণ দেওয়া হয়। শিল্পখাতে এই ঋণের সময়সীমা আরও বাড়ানো হলে বিনিয়োগের পরিমাণ বাড়বে। বৈদেশিক বিনিয়োগনীতি সহজ হলে বিদেশে বাংলাদেশিদের বিনিয়োগ বাড়বে।

মোহাম্মদ হাতেম বলেন, সীতাকুণ্ড থেকে চট্টগ্রাম বন্দর পর্যন্ত অনেক জায়গা খালি পড়ে আছে, এসব স্থানে এবং বন্দরসহ অন্যান্য বন্দরের আশপাশের জায়গাগুলোতে শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা সম্ভব।

বিজিএমইএ’র সভাপতি আতিকুল ইসলাম বলেন, পণ্যের উৎপাদন ব্যয় কমানো গেলে দেশীয় শিল্প প্রসার লাভ করবে। সরকার পোশাক খাতে প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহযোগিতা দিলে বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যান্য দেশে সুনামের সাথে পোশাক রপ্তানি করতে পারবে।

পোশাক কারখানা সম্পর্কে তিনি বলেন, অ্যাকর্ড অ্যান্ড অ্যালায়েন্স বাংলাদেশের পোশাক কারখানাগুলো পরিদর্শন করেছে। এতে মাত্র গুটি কয়েকটা কারখানা ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে।

বাংলাদেশ গ্রে অ্যান্ড ফিনিসড ফেব্রিক্স মিলস অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স এসোসিয়েশনের (বিজিএফএমইএ) সভাপতি হারুনুর রশিদ বলেন, শিল্প কারখানা পরিচালনায় এবং নতুন শিল্প কারখানায় সিঙ্গেল ডিজিটের সুদে ঋণ দেওয়া হলে এই খাত অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

তিনি বলেন, বর্তমানে শিল্পখাতে ১৬-১৮ শতাংশ সুদে ঋণ দেওয়া হয়। এই সুদের হার ৯ শতাংশ করা হলে আগামী ২ বছরের মধ্যে বর্তমানে দ্বিগুণ কারখানা তৈরি হবে।

সেমস গ্লোবাল ইউএসএ ও এশিয়া প্যাসিপিকের সভাপতি মিস মেহেরুন এন. ইসলামের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত এইচ.ই. লিইউন-ইয়াং।

মেলা শেষ হবে আগামী ৬ সেপ্টেম্বর। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে সন্ধ্য সাড়ে ৭টা পর্যন্ত চলবে। মেলায় প্রবেশে দর্শনার্থীদের কোনো ফি দিতে হবে না।

জেইউ/এমই/