হিমাচলে কোরবানি-পশুবলি নিষিদ্ধ

0
75
India Eid al Adha
ফাইল ছবি
India Eid al Adha
ফাইল ছবি

ভারতের হিমাচলে ধর্মীয় উদ্দেশ্য সব ধরনের পশু হত্যা নিষিদ্ধ করেছে প্রাদেশিক হাইকোর্ট।

এক খবরে বিবিসি জানিয়েছে, সম্প্রতি জনস্বার্থ মামলার রায় দিতে গিয়ে হিমাচলের হাইকোর্ট হিন্দুদের পশুবলি এবং মুসলিমদের কোরবানি নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।

এ সময় আদালত জানান, এই পার্বত্য রাজ্যে কোনও ধর্মীয় স্থানে বা ধর্মীয় উৎসবের সময় পশুবলি দেওয়া অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে এবং প্রশাসনকেই এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করতে হবে।

প্রসঙ্গত, ভারতের উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ হিমাচলে অসংখ্য মন্দির রয়েছে। এই সব মন্দিরে বছরজুড়ে পশুবলি দেওয়ার রীতি খুবই পুরনো। এ রাজ্যের দেড় শতাংশ অধিবাসী মুসলিম। আর এক মাস পরেই মুসলিমদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব কোরবানি।

ধর্মীয় কারণে পশু হত্যাকে অমানবিক আখ্যয়িত করে পশুবলি নিষিদ্ধ করার দাবিতে ২০১০ সাল থেকে হিমাচল হাইকোর্টে অন্তত তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছিল।মামলাগুলোএকত্র করে দীর্ঘ শুনানির পর আদালতে এ রায় দিলেন।

মামলার মূল বাদীও স্থপতি সোনালি পুরেওয়াল বলেন, ঈশ্বরকে যদি সন্তুষ্ট করতেই হয় তাহলে ফুল বা মিষ্টি দিয়েও তা করা যায়, পশুর রক্তই নিবেদন করতে হবে এমন তো কোনও কথা নেই। হয়তো শত শত বছর আগে এই প্রথার প্রাসঙ্গিকতা ছিল …আজ আমাদের আরও মানবিক হয়ে ওঠার সময় হয়েছে।”

তিনি জানান, মুসলিমদের কোরবানি এবং অন্যান্য ধর্মের ক্ষেত্রেও একই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ হবে।

এ আইনের ফলে ধর্মীয় ভাবাবেগ আহত হতে পারে স্বীকার করে সোনালি পুরওয়াল বলেন, দেখুন যে কোনও নতুন আইনেই ধর্মীয় ভাবাবেগ আহত হতে পারে। কিন্তু তাতে আঘাত করা আমাদের উদ্দেশ্য নয়। আমরা শুধু বলছি যদি ধর্মীয় কারণেই এটা করা হয়ে থাকে, তাহলে যে কোনও ধর্মের যেটা মূল বিষয় – সেই শান্তি আর মানবিকতাকেই তো এখানে হত্যা করা হচ্ছে। এরকম বর্বরোচিত একটা কাজ করে আপনি আপনার ধর্মের কোনও উপকারে আসছেন না।

এ রায়ের ব্যাপারে হিমাচল প্রদেশের রাজ্য সরকার এখনও কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি।