আইপিওর পরই মুনাফার বেলুনে ফুটো

0
103
Farr_Chemical_Logo
ফার কেমিক্যাল লোগো
Farr_Chemical_Logo
ফার কেমিক্যাল লোগো

কেলেঙ্কারী পিছু ছাড়ছে না বিতর্কিত প্রতিষ্ঠান ফার গ্রুপকে।আরএন স্পিনিং ও ফ্যামিলি টেক্সের ধারাবাহিকতাই যেনো ধরে রেখেছে গ্রুপের সর্বশেষ তালিকাভুক্ত কোম্পানি ফার কেমিক্যাল। প্রাথমিক গণ প্রস্তাবের (আইপিও) আগের বছর অস্বাভাবিক হারে বেড়েছিল কোম্পানিটির নিট মুনাফা।আইপিও অনুমোদন পর মুনাফার সেই বেলুন যেনো ফুটো হয়ে গেছ।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা গেছে, সর্বশেষ বছরে ফার কেমিক্যালের মুনাফা ব্যাপকভাবে কমে গেছে। গত ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটি শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) করেছে ৩ টাকা ৪৫ পয়সা। বর্তমানে কোম্পানির শেয়ার সংখ্যা ৯ কোটি ১০ লাখ। এ হিসেবে কোম্পানির নিট মুনাফা দাঁড়ায় ৩১ কোটি ৪০ লাখ টাকা। এটি আগের বছরের চেয়ে ৮ কোটি ১৫ লাখ টাকা বা প্রায় ২১ শতাংশ কম।

অথচ আইপিওতে আসার আগের বছর কোম্পানির মুনাফায় প্রবৃদ্ধি দেখানো হয়েছিল প্রায় ৮৬ শতাংশ। ২০১২-১৩ হিসাব বছরে ফার কেমিক্যাল নিট মুনাফা করেছিল ৩৯ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। যা আগের বছরের চেয়ে ২৮ কোটি ১৪ লাখ টাকা বেশি। ২০১১-১২ হিসাববছরে কোম্পানির মুনাফার পরিমাণ ছিল ২১ কোটি ৩১ লাখ টাকা।

আইপিওর আগে যে কোম্পানির মুনাফায় ৮৪% প্রবৃদ্ধি ছিল, জনগণের কাছে শেয়ার বিক্রির পর তার মুনাফা কমেছে প্রায় ২১ শতাংশ। এ বিষয়টিকে স্বাভাবিকভাবে নিতে পারছেন না বিনিয়োগকারীরা।

এ গ্রুপের প্রথম তালিকাভুক্ত কোম্পানি আরএন স্পিনিং ৩ বছর ধরে মামলার দোহাই দিয়ে কোনো লভ্যাংশ দিচ্ছে না। আর সে মামলা করেছে খোদ কোম্পানির উদ্যোক্তারা। মাত্র ২ বছর আগে তালিকাভুক্ত হওয়া ফ্যামিলি টেক্স প্রথম বছরেই লভ্যাংশ না দিয়ে জেড ক্যটাগরিতে চলে যায়।এর পরও ফার কেমিক্যালের আইপিও অনুমোদন দেয় বিএসইসি।