সাম্প্রতিক সময়ে সর্বনিম্ন দরে তুং হাই নিটিং

0
72
tung-hai-knitting
তুং হাই নিটিংয়ের ওয়েবসাইটের প্রচ্ছদ পাতার একাংশ
tung-hai-knitting
তুং হাই নিটিংয়ের ওয়েবসাইটের প্রচ্ছদ পাতার একাংশ

সাম্প্রতিক সময়ে নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্যে সর্বনিম্ন দরে লেনদেন শেষ করেছে তুং হাই নিটিংয়ের শেয়ার। সোমবার লেনদেনের প্রথম দিনেই শেয়ারটি ৩০ টাকা দরে লেনদেন শুরু হলেও শেষ পর্যন্ত ২৮ টাকায় নেমে যায়।

তথ্য পর্যালোচনায় জানা যায়, শেয়ারটি আজকে ২৮ টাকা বা ১৮০ শতাংশ দর বেড়ে গেইনারের শীর্ষ এবং লেনদেনের সেরা কোম্পানির তালিকায় রয়েছে। এদিন শেয়ারটির দর ২৭ টাকা ৫০ পয়সা থেকে বেড়ে ৩৩ টাকা ৫০ পয়সা পর্যন্ত ওঠে। কোম্পানির ৯৩ লাখ ৯১ হাজার শেয়ার ১৮ হাজার ১২৮ বার লেনদেন হয়। যার বাজার মূল্য ছিল ২৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা।

এদিকে কোম্পানির পিই রেশিও দাঁড়িয়েছে ২৬ দশমিক ৭৩ পয়েন্ট।

সম্প্রতি আইপিওতে আসা কোম্পানির তথ্য পর্যালোচনা করলে জানা যায়, ফারইস্ট নিটিং ৩৯ টাকা দরে লেনদেন শুরু করে ৪৫ টাকা ৫ পয়সায় লেনদেন শেষ হয়। এমনকি খুলনা প্রিন্টিংয়ের মত বিতর্কিত কোম্পানিও ৩৭ টাকা দরে লেনদেন শেষ করে। এর আগে শাহজিবাজার ৩৬ টাকা এবং ফার কেমিক্যাল ৫২ টাকায় লেনদেন শেষ করে।

ডিএসইতে সম্প্রতি নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্যে তুং হাই নিটিং প্রথম ৩০ টাকার নিচে লেনদেন শেষ করেছে।

বিশ্লেষকদের মতে, কোম্পানিটি প্রথম প্রান্তিকে মাত্র ১৫ পয়সা ইপিএস করেছে। আর কোম্পানিটির এমন ইপিএসে বিনিয়োগকারীরা ভরসা পাচ্ছে না। তবে অর্ধবার্ষিকীতে কোম্পানিটি ভাল মুনাফা করলে এই শেয়ারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বাড়তে পারে বলে মনে করেন তারা।

এদিকে বিনিয়োগকারীদের চোখ এখন কোম্পানির দ্বিতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদনের দিকে। গত ৩০ জুন কোম্পানির কোম্পানির দ্বিতীয় প্রান্তিক শেষ হয়েছে। তালিকাভুক্ত অন্যসব কোম্পানি জুন প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। লেনদেনের আগে তুং হাই নিটিং দ্বিতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ না করায় বিষ্মিত তারা। তাদের মতে, দ্বিতীয় প্রান্তিকের আর্থিক প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে কোম্পানির শেয়ার দামের গতি প্রকৃতি নির্ধারণ হবে।

বিশ্লেষকদের মতে, শুরুতেই অনেক বেশি দরে শেয়ার কেনা-বেচার চেয়ে এ ধরণের সংযত আচরণ বাজারের জন্য ইতিবাচক। তাহলে পরবর্তীতে কোম্পানির পারফরমেন্সর সাথে সঙ্গতি রেখে মূল্য পরিবর্তনের সুযোগ থাকে। বিনিয়োগকারীদেরও ঝুঁকি কমে যায়।

অর্থসূচক/এসএ/