মুক্তা হত্যা মামলা: তদন্ত কর্মকর্তাকে কারণ দর্শানোর নির্দেশ

0
35
Dinajpur Pic-1
মুক্তা পারভীনের স্বামী এস এম শামীম আনাম রাজু।

দিনাজপুরের আলোচিত মুক্তা হত্যা মামলায় মিথ্যা ফাইনাল রিপোর্ট প্রদান করায় তদন্তকারী কর্মকর্তাকে হাজির হয়ে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।সে সাথে মামলা আমলে নিয়ে প্রধান আসামি এস এম শামীম আনাম রাজুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে বিচারক।

গত ২৫ আগস্ট এ আদেশ দেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল দিনাজপুরের বিচারক মো. আখতার-উল-আলম।

জানা গেছে, যৌতুকের কারণে গত ২৭ মার্চ শহরের রামনগর এলাকায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটে।

স্থানিয়রা জানায়, শহরের মিস্ত্রিপাড়া এলাকার আব্দুল মালেকের কন্যা মুক্তা পারভীনকে (২৮) বিয়ের পর থেকেই স্বামী দিনাজপুর শহরের রামনগন (চামড়াপট্রি) এলাকার মৃত কুরবান আলীর পুত্র মো. এস এম শামীম আনাম রাজু ও তার পরিবারের সদস্যরা ৩ লাখ টাকা যৌতুকের জন্য নির্যাতন করত।

এরই মধ্যে মুক্তা দুই কন্যা সন্তানের মা হলে নির্যাতন আরও বেড়ে যায়। অন্যান্য সময়ের মত যৌতুকের কারণে আবারও ২৮ মার্চ শুরু হয় নির্যাতন। এক পর্যায় মুক্তাকে তার স্বামী পরিবারের লোকজনের সহযোগীতায় শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে গলায় ওড়না পেচিয়ে লাশ ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রেখে পালিয়ে যায় রাজু।

কোতয়ালী থানা মামলা না নেয়ায় মুক্তা পারভীনের মা মোসলেমিনা খাতুন বাদি হয়ে দিনাজপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল জজ আদালতে রাজুকে প্রধান আসামি করে ৪ জনের বিরুদ্ধে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন (২০০৩ সালে সংশোধীত) আইনের ১১(ক) /৩০ ধারায় মামলা দায়ের করে।

এমআইআর/সাকি