পড়ার খরচ যোগাতে আজব পাগলামি!

0
88
দুই টিভি সাংবাদিকের সাথে স্যাবাইন

নেদারল্যান্ডসের আমস্টারডামে বুধবার সকালে রাস্তায় ব্যস্ততা ছিল আর পাঁচটা দিনের মতো। হঠাৎই বড় রাস্তার মোড়ে এক যুবতীর আবির্ভাব। গায়ে একটি বড় ঝুলওয়ালা নীল ঢলঢলে জামা । জামাটা হাঁটু পর্যন্ত নেমে এসেছে। এ ছাড়া তার শরীরে আর কোনও পোশাক ছিল না।

দুই টিভি সাংবাদিকের সাথে স্যাবাইন
দুই টিভি সাংবাদিকের সাথে স্যাবাইন

হঠাৎ লোকজনকে হাত নেড়ে ডাকতে লাগলেন। লোকজন একটু সাড়া দিতেই একটানে নিজেই খুলে ফেললেন জামাটা। রাস্তার ওপর এমন নগ্ন নারীকে দেখে লোকজনের চোখ তখন ছানাবড়া।

ভিড় ঠেলে এগিয়ে এলেন দুই টিভি সাংবাদিক। যুবতী কিছুক্ষণ ক্যামেরার সামনে পোজ দিলেন, তার পর রাস্তায় জড়ো হওয়া কাউকে কাউকে চকাস করে চুমু খেয়ে নিলেন। এদিক-সেদিক দৌড়ে বেড়ালেন। তার পর এসে আবার জামাটা গায়ে জড়ালেন।

ঢোঁক গিলে জনতা যখন ধাতস্থ হওয়ায় চেষ্টা করছে, তখন আবার নগ্ন হয়ে গেলেন তিনি। এবার এক বালতি বরফঠান্ডা পানিতে সবার সামনে গা ভেজালেন। তার পর সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে জামা পরে চলে গেলেন। সিক্স নিউজ ডট নেটের এক প্রতিবেদনে একথা জানানো হয়েছে।

মেয়েটির ওই পাগলামির কারণ অবশ্য পরে জানা যায়। মেয়েটি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া। নাম স্যাবাইন। বছর পঁচিশের মেয়েটির ইদানিং পারিবারিক বিপর্যয়ের কারণে পড়ার খরচ জুটছিল না। কিন্তু তিনি পড়াশুনো ছেড়ে দেওয়ার পাত্রী নন।

তাই সংশ্লিষ্ট টিভি চ্যানেলের সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল, তিনি রাস্তায় নগ্ন হয়ে দৌড়োদৌড়ি করবেন। সেই ছবি তুলে টিভিতে দেখানো যাবে। তবে সেই বাবদ মোটা অর্থ রয়্যালটি দিতে হবে মেয়েটিকে। সেই টাকা তিনি পড়াশুনোয় ব্যয় করবেন। কথা অনুযায়ী তেমনটাই করেন ওই যুবতী।

টিভি চ্যানেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এককালীন রয়্যালটিই নয়, বরং মেয়েটির পড়াশুনোর পুরো খরচ জোগানো হবে। এতে বেজায় খুশি ওই ছাত্রী।

ইউএম/