রাবির ৩ ছাত্রলীগ নেতা বহিস্কার

0
29

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলীসহ দুই কর্মচারীকে মারধরের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের ৩ নেতাকে সাময়িক বহিস্কার করেছে প্রশাসন।

শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য চৌধুরী সারওয়ার জাহান সজল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বহিস্কৃত শিক্ষার্থীরা হলেন, তৌহিদ আল হোসেন তুহিন (বিবিএ, শিক্ষাবর্ষ ২০০৭-০৮, ফাইন্যান্স ও ব্যাংকিং বিভাগ), তন্ময় আনন্দ অভি (মাস্টার্স, শিক্ষাবর্ষ ২০০৭-৮, ফিশারীজ বিভাগ) এবং মামুন-অর-রশিদ (মাস্টার্স, শিক্ষাবর্ষ ২০০৯-১০, ফিশারীজ বিভাগ)। একই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদককে পদ থেকেও তুহিনকে অব্যহতি দেয় কেন্দ্রীয় কমিটি।rabi

গত ২৮ আগস্ট চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় রাবির ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী সিরাজুম মনিরকে উপাচার্য দপ্তরেই মেরে মাথা ফাটিয়ে দেয় তুহিন, সহ-সভাপতি তন্ময় আনন্দ অভি ও মামুন-অর-রশীদসহ একাধিক ছাত্রলীগ নেতাকর্মী।

ওই দিন ছাত্রলীগের হাতে মারধরের শিকার হোন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল দপ্তরের কর্মচারী সুমন ও প্রশাসন ভবনের গেইন ম্যান আবুল কাশেম। এ ঘটনায় তুহিনকে ছাত্রলীগ থেকে অব্যহতি দেওয়া হলেও অন্যদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য চৌধুরী সারওয়ার জানাহ সজল বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলীসহ আরও দুইজনকে মারধরের ঘটনায় ৭১’এর আইনের একক ক্ষমতা বলে উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিন শিক্ষার্থীকে সাময়িক ভাবে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত নেয়। তাদেরকে বিধি অনুযায়ী চুড়ান্তভাবে বহিস্কারের জন্য দ্রুত বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিসিপ্লিন কমিটিতে পাঠানো হবে। সেখান থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেটে তাদের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে একই ঘটনায়  জড়িতদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবিতে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

শনিবার সকাল ১০টার দিকে এসব কর্মসূচি পালন করা হয়। এর আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবন-২ এ সকাল ৯টা থেকে ১১টা পর্যন্ত তালা ঝুঁলিয়ে তারা কর্মবিরতি পালন করেছেন।