‘গুম’ শব্দটি বলতে রাজি নয় সরকার

0
37
goom
প্রতীকী ছবি
goom
প্রতীকী ছবি

মানবাধিকার সংগঠন অধিকারের পরিসংখ্যানে বলা হচ্ছে, গত পাঁচ বছরে দেড়শ জনকে গুমের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাগুলোর নিস্পত্তি করার ক্ষেত্রেও আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলো ব্যর্থ হচ্ছে বলে অধিকার মনে করে।

তবে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান গুম শব্দটিই বলতে রাজি নন।

এক খবরে শুক্রবার বিবিসি জানিয়েছে, স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ঘটনাগুলোকে তারা অপহরণের ঘটনা হিসেবে দেখেন এবং বেশিরভাগ ঘটনাই তারা উদ্ঘাটন করা সম্ভব হয়েছে বলেও তিনি দাবি করেছেন।

বাংলাদেশে মানবাধিকার সংগঠনগুলো অভিযোগ তুলেছে, দেশটিতে সাম্প্রতিক সময়ে রাষ্ট্রের বিভিন্ন বাহিনীর হাতে গুম বা অপহরণের ঘটনা বেড়েছে।
গুম বা অপহরণের শিকার ব্যক্তিদের স্মরণে আজ আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষে মানবাধিকার সংগঠনগুলো বিভিন্ন কর্মসূচিও নিয়েছে।

তবে সরকার এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

মানবাধিকার সংগঠনগুলো বলেছে, আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলোর হাতে আগে ক্রসফায়ারে নিহত হওয়া বা হেফাজতে নির্যাতনের ঘটনা ঘটতো। সেখানে এখন ঘটছে গুমের ঘটনা।

অধিকার এর সাধারণ সম্পাদক আদিলুর রহমান খান বলেছেন, এই গুমের ঘটনাগুলো নিয়ে সারাদেশে মানবাধিকার কর্মি যারা কাজ করছে, তাদের উপর রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে চাপ তৈরি করা হচ্ছে। যাতে মানবাধিকার্মীরা এ বিষয় নিয়ে কথা না বলে।

এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ গড়ে তুলতে মানবাধিকার সংগঠনগুলো কাজ করছে বলে তিনি উল্লেখ করেছেন।

এসব অভিযোগ অস্বীকার করে স্বরাষ্ট্র প্রতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, অপরাধের সংজ্ঞায় গুম শব্দ ব্যবহার করা হয় না।
ঘটনাগুলোকে অপহরণ হিসেবে দেখে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছে।