‘গণতন্ত্রের নামে আ.লীগ বাকশাল কায়েম করছে’

0
32

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক স্পিকার ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার বলেছেন, গণতন্ত্রের নামে আওয়ামী লীগ দেশে বাকশাল কায়েম করছে। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ৩০ আসনের বেশি পাবে না। আর এ কারণেই সরকার তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে ভয় পাচ্ছে।20 Dal Pic

শুক্রবার বিকেল ৫টায় স্থানীয় লোকবভন মিলনায়তনে ২০ দলীয় জোট দিনাজপুর জেলা শাখা আয়োজিত সমন্বয় সভায় ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার জনগণের সরকার নয়। ৫ শতাংশ ভোটকে তারা অনেক বেশি দেখিয়ে সরকার টিকিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। তারা ইতিহাস ভুলে গেছে। এদেশে মুঘল, ব্রিটিস,পাকিস্তান ও স্বৈরাচারও টেকেনি আওয়ামী লীগ সরকারও টিকবে না।

সাবেক এ স্পিকার বলেন, হাসিনা যাদেরকে মন্ত্রী বানিয়েছে; বিএনপি-জামায়াত নির্বাচন করলে তাদের জামানত বাতিল হয়ে যায়। তাই এই সরকারের পতন অনির্বায।

অবিলম্বে অবৈধ সরকারের পদত্যাগ এবং নির্দলীয়-নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিয়ে গণতন্ত্র, জনগনের ভোটাধিকার পূনঃপ্রতিষ্ঠার দাবিতে দিনাজপুরে ২০ দলীয় জোট এই সমন্বয় সভার আয়োজন করে।

জেলা বিএনপির সভাপতি লুৎফর রহমান মিণ্টুর সভাপতিত্বে জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান বলেন, শেখ মজিবুর রহমান দেশে সকল দল নিষিদ্ধ করেছিল। পত্রিকা বন্ধ করেছিল। দেশে বাকশাল কায়েম করেছিল। আপনিও সেই পথে হাটছেন। সংবাদপত্রের কন্ঠরোধ করার জন্য আইন তৈরি করছেন। আপনার কি মনে নাই এক নেতার এক দেশ, এক রাতে সব শেষ। তাই ক্ষমা চেয়ে নির্বাচন দেন তাহলে আমরা চিন্তা করব আপনাকে ক্ষমা করা যায় কিনা।

জেলা বিএনপির প্রচার সম্পাদক রেজাউল ইসলামের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ২০ দলীয়জোটের শীর্ষ নেতা জামায়াতের ইসলামী রংপুর-দিনাজপুর অঞ্চলের টিম সদস্য অধ্যক্ষ মাও. মমতাজ উদ্দীন, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক এমপি আখতারুজ্জামান মিয়া, জেলা জামায়াতের আমীর আনোয়ারুল ইসলাম, সেক্রেটারী অ্যাড. মাহবুবুর রহমান ভুট্টো, চিরিরবন্দর উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা জাতায়াতের সাবেক আমীর আফতাব উদ্দীন মোল্লা, জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাড. আনিসুর রহমান চৌধুরী, সদর উপজেলা জামায়াতের আমীর মাও. আব্দুল মাতিন, জেলা ন্যাপের সভাপতি মঞ্জুরুল আলম, খেলাফত মজলিসের সভাপতি মাও. খাদেমুল ইসলাম, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক হাসানুজ্জামান উজ্জল, বিরল উপজেলা চেয়ারম্যান আ ন ম বজলুর রশিদ, ফুলবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ খুরশিদ আলম মতি, কোতয়ালী বিএনপির সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক, বিরল উপজেলা বিএনপির সভাপতি রফিকুল ইসলাম, বোচাগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক মঞ্জুরুল ইসলাম, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা ছাত্রদরের আহ্বায়ক মোস্তফা কামাল মিলন, পৌর তাঁতীদলের আহ্বায়ক মুন্তাসির চৌধুরী লাবু, পৌর মহিলা দলের আহ্বায়ক শাহিন সুলতানা বিউটি প্রমুখ ।

আরকে/সাকি