‘রেলসহ সব খাতেই এখন উন্নয়ন আর উন্নয়ন’

0
49

Chunnuরেলমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, শেখ হাসিনাই পারে দেশের উন্নয়ন করতে। তার নেতৃত্বে রেলওয়েসহ সব খাতেই এখন শুধু উন্নয়ন আর উন্নয়ন। এর আগে বঙ্গবন্ধুর সরকার ছাড়া কেউ এমন উন্নয়ন করতে পারে নি।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ছোট মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর ৩৯তম শাহাদাৎবার্ষিকী উপলক্ষে জয় বাংলা সাংবাদিক মঞ্চ আয়োজিত বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে মন্ত্রী বলেন, আজ বাঙালি জাতি অবাক হয় যখন ১৫ আগস্ট শোকের দিনে খালেদা জিয়া ইচ্ছাকৃত ভাবে তার জন্মদিন পালন করেন। তিনি নিজে জন্মদিনের একটি তারিখ বলেন, নেতাকর্মীরা অন্যটি বলেন এবং সার্টিফিকেটে দেওয়া আছে আরেকটি। এটা দেখে জাতির লজ্জা হয়। একজন মানুষের কখনোই একাধিক জন্ম তারিখ হতে পারেনা।

এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় পলাতক খুনিদের ফিরিয়ে এনে তাদের বিচারের রায় কার্যকরের দাবিও জানান।

সভায় মন্ত্রীর কাছে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে বঙ্গবন্ধুর একটি প্রতিকৃতি স্থাপনের আহবান জানান সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। স্টেশনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও শেখ হাসিনার একটি প্রতিকৃতি স্থাপন করা হবে বলে জানান মন্ত্রী।

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিএফইউজে) সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বলেন, যারা অন্যায়ের পক্ষে কথা বলবে, সাম্প্রদায়িক উস্কানি দিবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলে গণমাধ্যমে আঘাত হানা হবে না। তাই সাংবাদিকদের জন্য একটি নীতিমালার অবশ্যই প্রয়োজন আছে।

তিনি বলেন, ১৯৭২ সালে জাতীয় প্রেসক্লাবে ডিইউজের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেছিলেন, সাংবাদিকদের যেমন স্বাধীনভাবে লেখার অধিকার রয়েছে। ঠিক তেমনি তাদের জন্য একটি নীতিমালারও প্রয়োজন আছে। মুক্তিযুদ্ধকালীন সময় অনেক সাংবাদিক পাকিস্তানের

হয়ে লিখেছে। সাংবাদিকদের স্বাধীনভাবে লেখার সুযোগ থাকলেও যখন কেউ দেশের বিরুদ্ধে লিখবে তাদেরকে যদি আঘাত করা হয় তাহলে কি সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতায় আঘাত করা হবে?

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর সেই প্রেক্ষাপটে আমিও আজ বলতে চাই সাংবাদিকদের জন্য একটি নীতিমালার অবশ্যই প্রয়োজন আছে। যারা বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে কথা বলে তাদের ‘ডাস্টবিনের’ সাথে তুলনা

করে এই সাংবাদিক নেতা বলেন, ডাস্টবিন যত বেশি নাড়াচড়া করা হয় তত বেশি দুর্গন্ধ বের হয়। ঠিক তেমনি যারাই বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে কথা বলবে ততই তাদের দুর্গন্ধ বের হবে।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি জয়ন্ত আচার্য্যরে সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সংসদ সদস্য আব্দুল ওয়াদুদ দারা, সানজিদা খানম, বিএফইউজের যুগ্ম মহাসচিব সাইফুল ইসলাম তালুকদার, ডিইউজের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাবান মাহমুদ, জয় বাংলা সাংবাদিক মঞ্চের উপদেষ্টা ও ডিইউজের সাবেক সভাপতি ওমর ফারুক প্রমুখ।

এমআই/