পানি বাড়তে পারে ঢাকার আশেপাশে

0
35
Jumuna River
সারিয়াকান্দিতে ঘরে বন্যার পানি প্রবেশ করায় প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিরাপদে নিয়ে যাচ্ছেন গ্রামবাসী।

ব্রহ্মপুত্র-যমুনা পাশাপাশি ঢাকা শহর সংলগ্ন নদ-নদীগুলোর পানি আগামী ৭২ ঘণ্টায় আরও বাড়তে পারে। এছাড়া আগামী ৭২ ঘণ্টায় গঙ্গা এবং ৪৮ ঘণ্টা পরে সুরমা-কুশিয়ারা নদীর পানি সমতল কমতে পারে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (বাপাউবি) বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।

Jumuna River
সারিয়াকান্দিতে ঘরে বন্যার পানি প্রবেশ করায় প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিরাপদে নিয়ে যাচ্ছেন গ্রামবাসী।

মঙ্গলবার সকাল ৬ টার বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের তথ্য অনুযায়ী, আগামী ৭২ ঘণ্টায় দেশের পশ্চিমাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতি স্থিতিশীল থাকতে পারে।

এতে আরও বলা হয়েছে, দেশের ১১টি নদীর ১৯টি স্টেশনে পানি বিপদসীমা বা বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর মধ্যে কংশ নদীর জারিয়াজাঞ্জাইল স্টেশনে বিপদসীমার ১৪৫ সে.মি. এবং আত্রাই নদীর বাঘাবাড়ি স্টেশনে ৯০ সে.মি. উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

বিপদসীমার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হওয়া অন্যান্য স্টেশনগুলো হলো-তিস্তা নদীর ডালিয়ায় ২৫ সে.মি; ঘাগটের গাইবান্ধায় ১৩ সে.মি; যমুনার বাহাদুরাবাদ, সারিয়াকান্দি, সিরাজগঞ্জ ও আরিচায় যথাক্রমে ২৭ সে.মি, ৬১ সে.মি, ১২ সে.মি. ও ৮ সে.মি; ধলেশ্বরীর এলাশীনে ৬৭ সে.মি; লইক্ষ্যার লাখপুরে ৬২ সে.মি; পদ্মার গোয়ালন্দ, ভাগ্যকূল ও সুরেশ্বরে যথাক্রমে ২০ সে.মি, ১০ সে.মি. ও ১৩ সে.মি; সুরমার কানাইঘাট, সিলেট, সুনামগঞ্জ ও দিরাইয়ে যথাক্রমে ৫৬ সে.মি, ৮ সে.মি, ৮৩ সে.মি. ও ২৫ সে.মি; এবং মেঘনার চাঁদপুরে ৬ সে.মি.।

এছাড়া ব্রহ্মপুত্র নদীর চিলামারি স্টেশনে বিপদসীমায় পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের সরকারী প্রকৌশলী রিপন কর্মকার স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ময়মনসিংহে ৮৫ মি.মি, সুনামগঞ্জে ৭৫ মি.মি, দূর্গাপুরে ৬৫ মি.মি, জামালপুরে ৫২ মি.মি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়।

এমই/