সময় গেলে সাধন হবে না …

0
64
stressedwoman
ফাইল ছবি
stressedwoman
ফাইল ছবি

‘বাউল সম্রাট’ লালন যথার্থই গেয়েছিলেন-

‘সময় গেলে সাধন হবে না
দিন থাকতে দ্বীনের সাধন কেন জানলে না
তুমি কেন জানলে না
সময় গেলে সাধন হবে না।‘

সময় থাকতে প্রতিটি মানুষকেই তার গুরুত্ব বুঝে নিতে হয়। কারণ হারানো সময় কখনও ফিরে পাওয়া যায় না। আর সময়ের মূল্য দিতে যারা জানে না তাদের জীবনটাও ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়। তখন আফসোসের আর শেষ থাকে না।

বরং আগে থেকে যদি নিজের ভুল শুধরে নেওয়া যায় তবেই কিছুটা লাভ হয়। পড়ালেখার মতো এমন অনেক বাপারই রয়েছে যা আমাদের নিজেদেরকেই বুঝে নিয়ে শুধরে নিতে হবে। কারণ সময়ের একটু উপলব্ধিই পারে আমাদের জীবনে একটা বড় পরিবর্তন নিয়ে আনতে।

এবার অর্থসূচকের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হলো সময় থাকতেই নিজ থেকেই কোন ব্যাপারগুলো বুঝে নেওয়া উচিত:

এক. সময় কারো জন্য অপেক্ষা করে না:

আজ কিছু করার ইচ্ছে হচ্ছে না, কিংবা কাজের চাপে পড়ে ভাবছেন এই কাজটি পরে করলেই চলবে। এই ধরণের চিন্তা অনেক বড় একটি ভুল। কারণ সময় আপনার জন্য অপেক্ষা করছে না। তাই জীবনের প্রতিটি সময়েই নির্দিষ্ট কিছু কাজ থাকে যা ওই সময়ই করতে হয়। তা না হলে জীবনে আর কোনদিনই করা হয়ে উঠে না সে কাজ। তাই সময় আপনার জন্য অপেক্ষা করছে না- এটা সময় থাকতেই বুঝে নিন।

দুই. অন্যের স্বপ্ন পূরণের পেছনে ছুটলে সফলতা আসে না:

সবসময় নিজের ইচ্চাটাকে প্রাধান্য দিন। বাবা মায়ের স্বপ্ন পূরণের জন্য নিজের মনের ইচ্ছেটাকে মাটি চাপা দিয়ে তাদের ইচ্ছের পেছনে ছুটতে শুরু করলে সফলতা পাবেন না। কারণ আপনার ইচ্ছের বিরুদ্ধে নেওয়া এই সিদ্ধান্ত আপনাকে কখনই সফল হতে দেবে না। তখন যে মানসিক পরিস্থিতিতে পড়বেন সেটাই হবে আপনার সফলতার পেছনে বাঁধা। তাই পারলে বাবা মাকে বুঝিয়ে নিজের পছন্দটির মূল্য দিন অথবা বাবা মায়ের স্বপ্নটাকেই নিজের স্বপ্ন বানিয়ে নিন।

তিন. জোর করে ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা পাওয়া যায় না:

ইচ্ছার বিরুদ্ধে কখনোই কারো কাছ থেকে ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা পাওয়া যায় না। কারণ জিনিস দুটো সম্পূর্ণই মানসিক ব্যাপার। এগুলো মন থেকে আসে। জোর করে পাওয়া যায় না। তাই সময় থাকতেই তা বুঝে নিন।

চার. শুধু অর্থই সকল সুখের মূল নয়:

কেবল ধনী হলেই কিন্তু জীবনে সুখী হওয়া যায় না। এক্ষেত্রে মানসিক প্রশান্তিটাই আসল ব্যাপার। মেনে নেওয়ার ক্ষমতা থাকলে ছেড়া কাঁথায় শুয়েও আপনি অনেক সুখে থাকতে পারবেন।

পাঁচ. আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠুন:

আত্নবিশ্বাস ছাড়া কোন কাজেই সফলতা আসে না। তাই নিজের জন্যই আত্মবিশ্বাসী একজন মানুষ হয়ে উঠুন।

ছয়. নেতিবাচক মনোভাব উন্নতির অন্তরায়:

জীবনে যদি উন্নতি করতে চান তাহলে নেতিবাচক মনোভাব একেবারে ছেড়ে ফেলে দিন। কারণ উন্নতির সবচাইতে বড় বাঁধা হলো এটি। কোনো কাজ করতে বুকে সাহস নিয়ে সামনে এগিয়ে যান। দেখবেন সফল আপনি হবেনই।

এএসএ/