কারখানা খুলে দিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি

0
32
garments
হেলিকোন লি. (গার্মেন্টস) কারখানা খুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন কারখানাটির ৭ শতাধিক শ্রমিক এবং জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন।
garments
হেলিকোন লি. (গার্মেন্টস) কারখানা খুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন কারখানাটির ৭ শতাধিক শ্রমিক এবং জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন।

ঢাকা ইপিজেডে ইটালিয়ান মালিকাধীন হেলিকোন লি. (গার্মেন্টস) কারখানা খুলে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন কারখানাটির ৭ শতাধিক শ্রমিক এবং জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন। পাশাপাশি শ্রমিকদের চাকুরিতে পূর্ণবহাল এবং আইন অনুযায়ী ক্ষতিপূরণ পরিশোধে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন তারা।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশে এ দাবি জানান শ্রমিক নেতারা।

প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনা করে বক্তারা বলেন, যেহেতু ইপিজেড মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তত্বাবধানে, তাই ৭’শতাধিক শ্রমিকের কথা বিবেচনা করে এ সমস্যার দ্রুত সমাধান করা উচিত।

বক্তারা সরকারের প্রতি দাবি জানিয়ে বলেন, ৭ দিনের মধ্যে হেলিকোন কারখানা খুলে দিতে হবে অথবা শ্রমিকদের বকেয়া বেতনসহ আইনানুগ ক্ষতিপূরণ পরিশোধ করতে হবে। তা না হলে শ্রমিকরা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের উদ্দেশ্যে পদযাত্রা করতে বাধ্য হবেন বলেও জানান তারা।

কারখানা মালিকের সমালোচনা করে বক্তারা বলেন, বিদেশী বিনিয়োগের নামে নানা ধরণের সুযোগ সুবিধা নিচ্ছে মালিক পক্ষ। অথচ শ্রমিকদের বাড়তি সুযোগ সুবিধা তো দূরে কথা দেশের প্রচলিত আইনও মানছেন না তারা।

জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিনের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ওয়ার্কাস পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য কমরেড কামরুল হাসান, বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর সাধারণ সম্পাদক সাব্বাহ আলী খান, বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর সভাপতি বাপ্পা দিত্য বসু প্রমুখ।

উল্লেখ্য, হেলিকোন কর্তৃপক্ষ গত ৯ আগস্ট কারখানাটি হঠাৎ করে বন্ধ করে দেয়। শ্রমিকরা প্রতিদিন কারখানার গেটে ভিড় জমাচ্ছে। কিন্তু কর্তৃপক্ষ কারখানা খোলাসহ বকেয়া বেতন পরিশোধের কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না।

এমআই/ এএসএ/