হোটেল আগ্রাবাদের মালিকের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

0
101
court-ctg
ফাইল ছবি
court-ctg
ফাইল ছবি

অর্থ আত্মসাতের মামলায় চট্টগামের তিন তারকা হোটেল আগ্রাবাদের মালিক এইচ এম খোরশেদ আলমসহ তিনজনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন চট্টগ্রামের আদালত।

২৬ বছর আগে প্রায় ৬ কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনায় দায়ের মামলায় তারা আদালতে উপস্থিত না হওয়ায় বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ জজ এস এম আতাউর রহমান এ পরোয়ানা জারি করেন।

গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি হওয়া অপর দুজন হলেন- পূবালী ব্যাংকের সাবেক এজিএম জসীম উদ্দিন এবং গালফ অ্যাসোসিয়েটের পরিচালক করিমুল হাসান।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৮ সালের ১০ মে আট হাজার মেট্রিকটন চাল আমদানির জন্য পূবালী ব্যাংকে ৫ কোটি ৮৫ লক্ষ ১৯ হাজার দু’শ টাকার একটি ঋণপত্র খোলেন এইচ এম খোরশেদ আলম।পরবর্তীতে চাল আমদানি না করে সেই টাকা আত্মসাৎ করায় খোরশেদ আলমসহ আটজনের বিরুদ্ধে আর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ১৯৯১ সালের ২৮ ডিসেম্বর তৎকালীন দুর্নীতি দমন ব্যুরোর পরিদর্শক শফিকুল ইসলাম কোতয়ালী থানায় একটি মামলা করেন। তদন্ত শেষে এ মামলায় আটজনের মধ্যে পাঁচজনের সম্পৃক্ততা না পাওয়ায় তাদের বাদ দেওয়া হয়।

৫ বছর পর ১৯৯৬ সালের ২০ জুলাই তিন আসামির বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪০৯, ৪২০, ৪৭১, ১০৯ এবং দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫ (২) ধারায় অভিযোগ গঠন করা হয়। ২ বছর পর ১৯৯৮ সালের ১০ মার্চ আসামিদের রিভিশন আবেদনে হাইকোর্ট মামলার কার্যক্রম স্থগিত করেন।

তারপর ১৫ বছর এ মামলার অগ্রগাতি হয়নি। সর্বশেষ ২০১৩ সালের ১১ অক্টোবর হাইকোর্ট স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করলে চলতি বছরের ২০ এপ্রিল বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতে মামলার কার্যক্রম শুরু হয়।

বিশেষ জজ আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী জানান, চলতি বছরের ২২ মে, ১৬ জুন, ২৩ জুলাই এবং ২১ আগস্ট চার দফা সময় নির্ধারিত হলেও তিন আসামি আদালতে হাজির না হওয়ায় তাদের জামিন বাতিল করে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত ।