আশরাফকে মিথ্যাবাদী বললেন ফখরুল

0
42
fokhrul
মির্জা ফখরুল
ফখরুল ইসলাম আলমগীর (ফাইল ছবি)

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে মিথ্যাবাদী বলেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ব্যারিস্টার আবদুস সালাম তালুকদার স্মৃতি সংসদ আয়োজিত ‘সাবেক মহাসচিব ও মন্ত্রী ব্যারিস্টার আবদুস সালাম তালুকদারের ১৫তম মৃতুবার্ষিকী’ উপলক্ষে স্মরণ সভায় তিনি তাকে এ আখ্যা দেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা তাকে (সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম) একজন সত্যবাদী ও স্বজ্জন ব্যক্তি হিসেবে জানতাম। কিন্তু তিনি একজন মিথ্যাবাদী। আশরাফ কয়েকদিন আগে বলছেন, রাজনীতি নিয়ে আমার সাথে নাকি তার নিয়মিত কথা হয়। আসলে আমার সাথে তার মাত্র তিনবার কথা হয়েছে। তাও ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের আগে।

তিনি বলেন, গণতন্ত্রের জন্যই তো আলোচনা সংলাপ; তার সাথে যদি কথা হতো তাহলে দেশ ও জনগণের ভালোই হতো। কিন্তু আওয়ামী লীগ জনগণের ভালো চায় না।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য সুরঞ্জিতসেন গুপ্তের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, তিনি খুব সু্ন্দর কথা বলতে পারেন। বিভিন্ন কথা বলে তিনি বিএনপির নেতাদের মাঝে বিভেধ সৃষ্টি করার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু সফল হতে পারেন নি। আর সুন্দর কথা বলেও তার মন্ত্রিত্ব টিকাতে পারেননি।

আওয়ামী লীগ আবার একদলীয় শাসনে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ফ্যাসিবাদ সরকারকে প্রতিহত করতে আমাদের আবদুস সালাম ভাইয়ের দিকে তাকাতে হবে। তার আদর্শ লালন করে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে আমাদের সরকার রিরোধী আন্দোলনে ঝাপিয়ে পড়তে হবে।

সরকারের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, জনগণের দাবি মেনে নিন। নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মাধ্যমে সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। আমাদের গণ আন্দোলন থামাতে পারবে না।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ঢাকা মহানগর আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে চায়। তাই তারা স্বাধীন মত প্রকাশের স্থানগুলো বিভিন্নভাবে দখল করে ফেলেছে। আমাদের আন্দোলনে সরকার বিভিন্নভাবে বাধা দিচ্ছে। আর তারা বলছে বিএনপির গণআন্দোলন করার ক্ষমতা নেই।

আওয়ামী লীগ নেতাদের উদ্দেশ করে আব্বাস বলেন, আমরা এসিতে বসে বক্তব্য দেই বলে উস্কানি দিচ্ছেন। আপনাদের অবস্থাও খুব ভালো না, নড়বড়ে কাচের ঘর। তাই বলব উস্কানি দেবেন না, উস্কানির পরিণতি ভালো হবে না।

সভায় সংগঠনের সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, সেলিমা রহমান, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় প্রমুখ।