‘মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় কোটি মানুষ’

0
38

Clinical-Psychologyবিশেষজ্ঞরা মনে করেন, বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে প্রায় এক কোটি মানুষ কোনো না-কোনোভাবে মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় ভোগেন। তবে তাদের মানসিক স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত মনোবিজ্ঞানী, মনোরোগ চিকিৎসক বাংলাদেশে নেই।

বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত চতুর্থ বাংলাদেশ ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি সম্মেলনের আজকের অধিবেশনে বিশেষজ্ঞরা এমন তথ্য জানায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগ ও নাসিরুল্লাহ সাইকোথেরাপি ইউনিট যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে।

সম্মেলনে জাতীয় অধ্যাপক ডা. এম আর খান বলেন, মানসিক কারণে নানা ধরনের শারীরিক সমস্যায় ভোগা মানুষের সংখ্যাও আমাদের দেশে প্রচুর। তাদের চিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য দেশের সরকারি-বেসরকারি সব হাসপাতালে চিকিৎসা মনোবিজ্ঞানী নিয়োগ করা প্রয়োজন। অন্যথায় এ মানুষগুলো ভুল চিকিৎসার পেছনে প্রচুর সময় ও অর্থ খরচ করবে, যা দেশের অর্থনীতিকে আরও দুর্বল করবে।

সম্মেলনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লিনিক্যাল সাইকোলজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. শাহানূর হোসেন ও ব্রিটিশ ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট

ড. গ্রাহাম পাওয়েল বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের ওপর একটি গবেষণা পরিচালনা করেন।

গবেষণা দেখা যায়, ৫০ ভাগ মানুষ রাগ ও অস্থিরতার সমস্যায় ভুগছেন। যা যুক্তরাজ্যের মোট জনসংখ্যার তুলনায় পাঁচ গুণেরও বেশি।

সম্প্রতি রানা প্লাজার দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্তদের নিয়ে পরিচালিত গবেষণায় দেখা গেছে, ৭০ ভাগ ব্যক্তি দুর্ঘটনা-পরবর্তী সময়ে তীব্র চাপের মধ্য পড়েছিলেন। তবে তাদের মধ্যে মাত্র ৫ ভাগ আংশিক মানসিক স্বাস্থ্যসেবা পেয়েছেন।

গ্রাহাম পাওয়েল মূল প্রবন্ধে উল্লেখ করেন, মানসিক স্বাস্থ্যের অবনতি হয় এমন বিষয়গুলো কমাতে না পারলে অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক এতে সভাপতিত্ব করেন। সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য (প্রশাসন) সহিদ আকতার হুসাইন, মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক ওয়াজিউল আলম চৌধুরী, দেশি-বিদেশি ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট ও চিকিৎসক।