খুলনার মেয়রের সাথে এডিবি প্রতিনিধি দলের মতবিনিময়

0
33

kccএশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (এডিবি) প্রতিনিধি দল খুলনা সিটি মেয়র মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানের সাথে মতবিনিময় সভায় মিলিত হয়েছেন।

বুধবার দুপুরে নগর ভবনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় এডিবির অর্থায়নে আরবান পাবলিক অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল হেলথ সেক্টর ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের আওতায় খুলনা মহানগরী এলাকায় নির্মাণাধীন স্যানিটারি ল্যান্ডফিল ও ৮টি সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন (এসটিএস) বাস্তবায়নের অগ্রগতি বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

সিটি মেয়র প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, খুলনাকে একটি আধুনিক ও স্বাস্থ্যসম্মত নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। খুলনা মহানগরীর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এ প্রকল্পটি দ্রুত বাস্তবায়নের জন্যও প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। ইতোমধ্যে স্যানিটারি ল্যান্ডফিল নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় ২৪ দশমিক ৭০ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে।

এছাড়া ৮টি এসটিএসের মধ্যে জব্বার স্বরণী, মুজগুন্নী মহাসড়ক, বিআইডিসি রোড ও খালিশপুর নিউ মার্কেট রোডের পাশে ৪টি এসটিএসের নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে এবং বাকি ৪টি এসটিএসের নির্মাণ কাজ অচিরেই শুরু করা হবে বলে সিটি মেয়র প্রতিনিধি দলকে অবহিত করেন। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে খুলনা মহানগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় আমূল পরিবর্তন সাধিত হবে বলে মেয়র উল্লেখ করেন।

মতবিনিময়কালে এডিবির সিনিয়র আরবান ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট কেইচি তামাকি, প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. ফজলে ওয়াহিদ খোন্দকার, সহকারী প্রকল্প পরিচালক (উপসচিব) জিয়াউল হক, কেসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রজেক্ট ম্যানেজার আব্দুল হান্নান বিশ্বাস, প্রকল্পের নির্বাহী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর খান, প্রকল্পের কনসালট্যান্ট প্রকৌশলী মোস্তাফিজুর রহমান, আর্কিটেক্ট শাহ আলম ও এসএনভি’র টিম লিডার রাজীব মুনানকামী, কেসিসি’র প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও ডেপুটি প্রোজেক্ট ম্যানেজার ডা. এ কে এম আব্দুল্লাহ, কঞ্জারভেন্সী অফিসার আনিসুর রহমানসহ প্রকল্পের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, এ প্রকল্পের আতওায় প্রায় ১২ কোটি টাকা ব্যয়ে নগরীতে ৮টি সেকেন্ডারি ট্রান্সফার স্টেশন নির্মাণ কাজ চলমান রয়েছে এবং অধিগ্রহণকৃত জমিতে স্যানিটারি ল্যান্ডফিলের নির্মাণ কাজ শীঘ্রই শুরু করা হবে। সকালে প্রতিনিধি দলটি অধিগ্রহণকৃত জমি ও চলমান এসটিএসের নির্মাণ কাজ সরেজমিন পরিদর্শন করেন। প্রতিনিধি দল কাজের অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং খুলনা মহানগরীর উন্নয়নে তাদের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে সিটি মেয়রকে অবহিত করেন।