সমাধানে মালিক-শ্রমিক বৈঠক বিজিএমইএতে

0
34
Garments working
ছবি: ফাইল ছবি
garments-worker
পোশাক কারখানায় কাজ করছেন শ্রমিকরা

বিনা নোটিশে বন্ধ করে দেওয়া মহাখালীর রসুলবাগের যমুনা ফ্যাশন ওয়্যার লিমিটেডের কারখানার মালিক ও শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠক করেছে বিজিএমইএ।

মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টায় বিজিএমইএ ভবনে এই বৈঠক  হয়।

বৈঠক শেষে তাদের ছাটাই ধারা অনুযায়ী বেত প্রদান করা হবে বলে জানা গেছে। তাতে ১ বছর কাজ করা শ্রমিক ১ মাসের বেতন ও ১টি বেসিক, ৫ বছর কাজ করা শ্রমিকের ১ মাসের বেতন ও ২ বেসিক, ১০ বছর কাজ করা শ্রমিকের ১ মাসের বেতন ও ৩ বেসিক এবং তাদের উর্ধ্বে কাজ করা শ্রমিক পাবেন ১ মাসের বেতনের সঙ্গে ৪ বেসিক। বেতন চলতি মাসের ৩১ তারিখে কারখানা থেকে প্রদান করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

এর আগে শ্রমিকরা জানান, চলতি মাসের ১৩ তারিখে জুলাই মাসের বেতন দিয়েই কারখানাটিতে তালা লাগিয়ে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

কারখানাটিতে ১৪ বছর ধরে লাইন চিফ হিসেবে কাজ করেন শেরপুরের বিউটি আক্তার। তিনি অর্থসূচককে বলেন, চলতি মাসের ১৩ তারিখে কারখানার ২৭৫ জন শ্রমিককে বেতন প্রদান করেন কর্তৃপক্ষ। এর পরদিনই কারখানাটিতে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। শ্রমিকরা কাজ করতে গিয়ে দেখতে পান কারখানাটি বিনা নোটিশে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ওই দিন শ্রমিকরা বিজিএমইএতে আসলে ১৯ আগস্ট মালিকের সঙ্গে সমাধান করে দেওয়া হবে বলে সংগঠনটির পক্ষ থেকে আশ্বাস দেওয়া হয়।

কারখানার শ্রমিকরা জানান, গতমাসের বেতন দিয়ে শ্রমিকদের না জানিয়ে হঠাৎ কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। মালিক যদি কারখানা বন্ধই করতে চান তবে শ্রম ধারা অনুয়যায়ী তাদের পাওনাদি পরিশোধ করতে হবে।

আর ৭ বছর ধরে কাজ করা বরিশালের জোসনা আক্তার জানান, হঠাৎ করে কারখানা বন্ধ হয়ে গেলে আমরা কোথায় যাব। নতুন করে চাকরি পাওয়াটা সমস্যা হবে।

এদিকে কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, কারখানার মালিক শামসুদ্দিনের মিরপুরে আরও একটি কারখানা রয়েছে যেখানে এই শ্রমিকদের স্থানান্তর করতে চান তিনি। তবে শ্রমিকরা ওই কারখানাতে যেতে ইচ্ছুক নন।