র‌্যাব-কোস্ট গার্ড হত্যায় ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

0
29
court-ctg
ফাইল ছবি
court-ctg
ফাইল ছবি

র‌্যাব ও কোস্ট গার্ডের ৩ সদস্যকে হত্যা মামলায় ৬ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও ৭ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বাগেরহাটের জেলা ও দায়রা জজ এস এম সোলায়মান মঙ্গলবার এই রায় ঘোষণা করেন।

অপরাধ প্রমাণিত না হওয়ায় খালাস পেয়েছেন ২ জন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- মোড়েলগঞ্জ উপজেলার গাবগাছিয়া গ্রামের রফিকুল শেখ, কুদ্দুস শেখ, ইদ্রিস শেখ, বাবুল শেখ এবং খাল খুলিয়া গ্রামের আলকাত ফকির ও ইলিয়াস শেখ।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- গাবগাছিয়া গ্রামের আকরাম শেখ, আলম শেখ, বাদশা শেখ, জামাল শেখ, কামাল ওরফে সুমন শেখ, রিয়াজুল শেখ ও হোগলা ডাঙ্গা গ্রামের আসলাম শেখ।

খালাস পেয়েছেন, নান্না শেখ ও মিজানুর রহমান।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, খালাস পাওয়া ২ জন ছাড়া বাকি আসামিরা পলাতক রয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৬ সালের ১ ডিসেম্বর ডাকাতির প্রস্তুতি নেওয়ার খবর পেয়ে সুন্দরবন সংলগ্ন পশুর নদীতে অভিযানে যায় র‌্যাব ও কোস্টগার্ডের একটি দল।

এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি শুরু হলে এক পর্যায়ে ডাকাতদের কোনঠাসা করে তাদের ট্রলারে উঠে পড়েন র‌্যাব ও কোস্টগার্ড সদস্যরা।

ট্রলারে ডাকাতদের সঙ্গে তাদের ধস্তাধস্তি শুরু হয় এবং এক পর্যায়ে আসামিরা কোস্টগার্ড সদস্য এমএইচ কবির, এমএ ইসলাম ও র‌্যাব সদস্য পিসি কাঞ্চনকে নিয়ে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে। পরদিন পশুর নদী থেকে ওই তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

ওই ঘটনায় র‌্যাব-৬ এর তৎকালীন উপ সহকারী পরিচালক মহসিন আলী অজ্ঞাত পরিচয় আসামিদের বিরুদ্ধে মংলা থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও মংলা থানার তৎকালীন এসআই মো. নাসির উদ্দিন শেখ ২০০৭ সালের ৮ মে ১৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন।