বিপদসীমার ওপর ৭ নদীর পানি

0
36
River Flood Map
যমুনাসহ দেশের ৭টি প্রধান নদ-নদীর পানি বিপদসীমার ওপরে প্রবাহিত হচ্ছে।

যমুনা-ব্রহ্মপুত্রসহ দেশের ৭টি প্রধান নদ-নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ব্রহ্মপুত্র-যমুনা, পঙ্গা-পদ্মা এবং মেঘনাসহ ঢাকা শহর সংলগ্ন নদ-নদীগুলোর পানির আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (বাপাউবি)।

River Flood Map
যমুনাসহ দেশের ৭টি প্রধান নদ-নদীর পানি বিপদসীমার ওপরে প্রবাহিত হচ্ছে।

মঙ্গলবার সকাল ৬টায় বাপাউবি’র দেওয়া তথ্য মতে, ঘাগট নদীর গাইবান্ধা স্টেশনে ২৪ সে.মি, ব্রহ্মপুত্রের চিলামারি স্টেশনে ৯ সে.মি, যমুনার বাহাদুরাবাদ ও সারিয়াকান্দি স্টেশনে যথাক্রমে ১২ সে.মি. ও ৩৯ সে.মি, আত্রাই নদীর বাঘাবাড়ি স্টেশনে ৩৬ সে.মি, ধলেশ্বরীর এলাশীন স্টেশনে ১১ সে.মি, সুরমা নদীর কানাইঘাট ও সুনামগঞ্জ স্টেশনে যথাক্রমে ৫৫ সে.মি. ও ৩৮ সে.মি. এবং কংশ নদীর জারিয়াজাঞ্জাইল স্টেশনে ৬৭ সে.মি. বিপদসীমার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া যমুনার সিরাজগঞ্জ স্টেশনের পানি বিপদসীমার সমতলে প্রবাহিত হচ্ছে।

প্রবল বর্ষণে উজান থেকে নেমে আসা ঢলে নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ভারত থেকে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে মেঘনা অববাহিকার অধিকাংশ নদনদীর পানি বাড়ছে। নদীর পানি বাড়ায় নদী তীরবর্তী চর ও নিম্নাঞ্চলের নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে।

বাপাউবির বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের সহকারী প্রকৌশলী রিপন কর্মকার জানান, যমুনা নদীর তীরবর্তী সিরাজগঞ্জ সদর, বেলকুচি, এনায়েতপুর, চৌহালী, কাজিপুর ও শাহজাদপুর উপজেলার চরাঞ্চল ও নিম্নাঞ্চলের নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ার পাশাপাশি ভাঙনের খবর পাওয়া গেছে।

বগুড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী নূরুল ইসলাম সরকার জানান, রোববার রাতে সারিয়াকান্দির কামালপুর এলাকায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ৫০ মিটার এলাকা ধসে যায়। সোমবার সকালে নদীতে বিলিন হয়ে যায় ধুনটের শহরাবাড়ি এলাকায় ৭২৭ মিটার স্পারের এক দিকের ৫০ মিটার অংশ।

বগুড়ার জেলা প্রশাসক মো. শাহাবুদ্দিন খান জানান, পানিবন্দি লোকজনের সহায়তায় সরকারিভাবে ১২ মেট্রিক টন চাল ও দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

এমই/