রেসের মিউচুয়াল ফান্ডের লভ্যাংশ নিয়ে ধোঁয়াশা

0
63
race-logo
রেস অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট-লোগো
race-logo
রেস অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট-লোগো

সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানি রেস অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট পরিচালিত ১০টি মিউচুয়াল ফান্ডের লভ্যাংশ নিয়ে ধোঁয়াশা ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে। মিউচুয়াল ফান্ডগুলোতে পুনঃবিনিয়োগ তথা বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করা হয়েছে। কিন্তু ইউনিটের অভিহিত মূল্যের উপর লভ্যাংশ ঘোষণা না করে নিট সম্পদ মূল্যের (এনএভি) উপর ঘোষণা করা অকারণ জটিলতা তৈরি হয়েছে।

জটিলতা আরও বেড়েছে এনএভি হিসাবে বিতর্কিত সময় নির্ধারণে। ফান্ডগুলোর প্রকাশিত এনএভির উপর লভ্যাংশ দেওয়া হবে না। আগামী ২৮ আগস্ট লেনদেন শেষে প্রকাশিত এনএভির উপর ঘোষিত হারে লভ্যাংশ পাবেন ইউনিটধারীরা। ফলে বাস্তবে তারা কত লভ্যাংশ পাচ্ছেন তা জানতে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত তাদেরকে অপেক্ষা করতে হবে। একইভাবে কোনো বিনিয়োগকারী এসব ফান্ডের ইউনিট কিনতে চাইলেও অনিশ্চিত ও অন্ধকারে থেকেই তা কিনতে হবে।

অন্যদিকে প্রকাশিতব্য এনএভির উপর লভ্যাংশ ঘোষণার কারণে মূল্য কারসাজির যথেষ্ট আশংকাও থাকবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। বিদ্যমান ইউনিটহোল্ডার এবং বিনিয়োগে আগ্রহীসহ যে কেউ এ কারসাজিতে যুক্ত হতে পারেন। এমনকি খোদ সম্পদ ব্যবস্থাপনা কোম্পানিটিও এ সন্দেহের মধ্যে পড়তে পারে।ওই সময় পর্যন্ত ফান্ডের শেয়ার কেনা- বেচা সংক্রান্ত কোম্পানিটির সব সিদ্ধান্ত হতে পারে প্রশ্নবিদ্ধ।

এদিকে সংবাদপত্রে দেওয়া লভ্যাংশ ঘোষণা সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন এবং ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যের মধ্যেও রয়েছে অসঙ্গতি। এসব তথ্য পরস্পরবিরোধী ও বিভ্রান্তিকর।

গত বৃহস্পতিবার ফান্ডগুলোর ট্রাস্টির বৈঠকে গত ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য লভ্যাংশ ঘোষণা করা হয়। এর মধ্যে ফার্স্ট জনতা ব্যাংক মিউচুয়াল ফান্ডে ১২.৫০%, আইএফআইসি ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডে ৯%, ফার্স্ট বাংলাদেশ ফিক্সড ইনকাম ফান্ডে ১০%, ট্রাস্ট ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডে ১০%, ইবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডে ৭%, পিএইচপি মিউচ্যুয়াল ফান্ডে ১০%, ইবিএল এনআরবি মিউচুয়াল ফান্ডে ১০%, এবি ব্যাংক ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডে ১০%, পপুলার লাইফ ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডে ১২% এবং এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডে ১২% লভ্যাংশ ঘোষণা করা হয়।

সবগুলো ফান্ডেই রি-ইনভেস্টমেন্ট (পুনঃবিনিয়োগ) তথা বোনাস লভ্যাংশ দেওয়া হয়।এর জন্য রেকর্ড তারিখ নির্ধারণ করা হয় ১ সেপ্টেম্বর।বলা হয়, রেকর্ড তারিখের আগে প্রাপ্য এনএভির উপর ঘোষিত লভ্যাংশ কার্যকর হবে।বিদ্যমান বিধি অনুসারে সম্পদ ব্যবস্থাপক কোম্পানিগুলো সাপ্তাহিক ভিত্তিতে ফান্ডের এনএভি প্রকাশ করে থাকে। বৃহস্পতিবার লেনদেন শেষে যে এনএভি দাঁড়ায় তা রোববার প্রকাশ করা হয়।

আলোচিত ফান্ডগুলোর ক্ষেত্রে রেকর্ড তারিখের আগে শেষ এনএভি প্রকাশ করা হবে ৩১ আগস্ট। তার পরদিনই রেকর্ড তারিখ। তাই কোনো বিনিয়োগকারী ফান্ডগুলো থেকে প্রকৃত লভ্যাংশ কত পাওয়া যাবে তা জেনে বিনিয়োগ করতে চাইলে তাকে ৩১ আগস্ট সকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।এ হিসেবে ইউনিট কেনা-বেচার জন্য কেবল ওই দিনটিই পাবেন বিনিয়োগকারীরা।

এদিকে ডিএসইর ওয়েবসাইটে দেওয়া তথ্য এবং রেসের দেওয়া বিজ্ঞাপনের তথ্যে অসঙ্গতি পাওয়া গেছে। যেমন পপুলার লাইফ ফান্ডের লভ্যাংশ বিষয়ে ডিএসইর দেওয়া খবরে বলা হয়েছে, এর ক্যাপিটাল ফান্ড ২০৪ কোটি ৭২ লাখ ১৪ হাজার ৩৫০ টাকার উপর ১০% লভ্যাংশ দেওয়া হবে।এর অর্থ দাঁড়ায় ফেস ভ্যালু বা অভিহিত মূল্যের ওপর ১০% হারে লভ্যাংশ পাবেন বিনিয়োগকারীরা।অথচ রেসের দেওয়া বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে এনএভির উপর লভ্যাংশের কথা।

অন্যদিকে জনতা ব্যাংক মিউচ্যুয়াল ফান্ড, আইএফআইসি মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ফার্স্ট বাংলাদেশ ফিক্সড ইনকাম ফান্ড, ইবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড এবং এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের সংবাদে এনএভির উপর ভিত্তি করে লভ্যাংশ দেওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেনি ডিএসই।