‘বিচারক অপসারণ বিতর্ক’

0
36
enewspaprer

enewspaprerআজ মঙ্গলবার দেশের বেশিরভাগ পত্রিকা বিচারক অপাসারণকে গুরুত্ব দিয়ে লিড নিউজ করেছে। উচ্চ আদালতের বিচারক অপসারণ ক্ষমতা জাতীয় সংসদের কাছে ফিরিয়ে দিতে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত হয়েছে।

গতকাল সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে বিচারক অপসারণ ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে দিতে সংবিধান (ষোড়শ সংশোধন) আইন, ২০১৪-এর খসড়া প্রস্তাব ভেটিং সাপেক্ষে চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। বাহাত্তরের সংবিধানে বিচারক অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ন্যস্ত ছিল।

আইন কমিশনের চেয়ারম্যান ও সাবেক প্রধান বিচারপতি এ বি এম খায়রুল হক বলেছেন, বিচারক অপসারণ ক্ষমতা সংসদের হাতে গেলেও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ক্ষুণ্ন হবে না। তবে এতে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ক্ষুণ্ন হবে বলে আশঙ্কা করছেন বিশিষ্ট আইনজীবীরা।

সমকাল লিড নিউজ করেছে- ‘বিচারক অপসারণ বিতর্ক’। এর দ্বিতীয় লিড নিউজের শিরোনাম হলো- ‘শিল্পকারখানায় গ্যাস সংকট উৎপাদন ব্যাহত’।

প্রথম আলোর লিড নিউজের শিরোনাম হলো- ‘নম্বরপত্রে ঘষামাজা, ২৫ কর্মকর্তা জড়িত’। এর উপ- শিরোনাম হলো- ‘খাদ্য অধিদপ্তরে নিয়োগে অনিয়ম’। বিচারক অপসারণ নিয়ে পত্রিকাটি নিউজ করেছে- ‘বিচারপতিদের অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদের হাতে যাচ্ছে’। এর টিকার হলো- ‘মন্ত্রিসভায় আইনের খসড়া অনুমোদন’।

কালের কণ্ঠের লিড নিউজের শিরোনাম হলো- ‘বিচারক অপসারণ প্রক্রিয়া আরেক ধাপ এগোল’। এর টিকার হলো- ‘মন্ত্রিসভায় সংশোধনী বিল অনুমোদন’। পত্রিকাটির দ্বিতীয় লিড নিউজের শিরোনাম হলো-‘আড়াই বছর ধরে ‘ভুল’ পড়ছে শিক্ষার্থীরা!’।

দৈনিক ইত্তেফাক লিড নিউজ করেছে- ‘বিচারপতিদের অভিশংসনের ক্ষমতা পাচ্ছে সংসদ’। এর টিকার হলো- ‘মন্ত্রিসভায় আইনের খসড়া অনুমোদন’।

ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার লিড নিউজ করেছে- ‘A plea goes in vain’. এর টিকার হলো- ‘Govt sought legal opinion, ignored it; JS to get power to impeach SC judges’.

দ্য ফিনান্সিয়ালের লিড নিউজের শিরোনাম হলো- ‘BD moves to join Asian Infrastructure Bank’. এর টিকার হলো- ‘Muhith likely to discuss Beijing-framed deal today.’ পত্রিকাটির দ্বিতীয় লিড নিউজের শিরোনাম হলো- ‘Parliament to get authority to impeach SC judges’. এর টিকার- ‘Cabinet clears 16th amendment to Constitution’.

এএসএ/