‘বিচারপতিদের জবাবদিহিতা নিশ্চিতেই ষোড়শ সংশোধনী’

0
45
Anisul...
আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক- ফাইল ছবি

বিচারপতিদের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতেই সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আইন অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক।

সোমবার সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আইন-২০১৪ মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পাওয়ার পর সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা জানান।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘বিচার বিভাগ যে স্বাধীন এ বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। বিচারপতিদের জবাবদিহিতা ও স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতেই এই সংশোধনী।’

তিনি বলেন, পৃথিবীর যেসব দেশে সংসদীয় গণতন্ত্র চালু আছে যেমন- যুক্তরাজ্য, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, জার্মানি প্রভৃতি দেশে বিচারপতিদের অভিশংসনের জন্য আইন রয়েছে।

প্রসঙ্গত, সংসদের হাতে বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা ফিরিয়ে দিতে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আইনের খসড়া সোমবার অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররফ হোসাইন ভূঁইঞা সাংবাদিকদের জানান, ভেটিং সাপেক্ষে সংবিধান (ষোড়শ সংশোধন) আইন, ২০১৪-এর খসড়ায় চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

সচিব আরও জানান, ১৯৭২ সালের সংবিধানে বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতেই ছিল। কিন্তু ১৯৭৮ সালে সামরিক ফরমান বলে এই ক্ষমতা সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলকে দেওয়া হয়। সংশোধিত আইনের মাধ্যমে এই ক্ষমতা আবার সংসদের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া হবে। এর ফলে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিদের অপসারণের সিদ্ধান্ত নিতে সংসদের দুই তৃতীয়াংশ সদস্যের অভিমত নিতে হবে।

তবে রাষ্ট্রপতির আদেশ ছাড়া কোনো ব্যবস্থা নেওয়া যাবে না বলেও জানান মোশাররফ হোসাইন ভূঁইঞা।

মন্ত্রিসভায় আইনটি নীতিগত অনুমোদন পাওয়ার পর এবার তা বিধি অনুযায়ী সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে যাবে। দশম সংসদের তৃতীয় অধিবেশনেই এ-সংক্রান্ত বিল উপস্থাপনের সম্ভাবনা রয়েছে। আইনটি সংসদে পাস হলে সংবিধানে ষোড়শ সংশোধন অন্তর্ভুক্ত হবে।