‘দেশের উন্নয়নে শিক্ষিতদের অবদান কম’

0
38
planning minister at DU_ Sinet
সভায় বক্তব্য রাখছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ছবি-মহুবার রহমান
planning minister at DU_ Sinet
সভায় বক্তব্য রাখছেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ছবি-মহুবার রহমান

দেশের উন্নয়নে শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর ভূমিকা তেমন উল্লেখযোগ্য নয় বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

রোববার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে আয়োজিত ‘বাংলাদেশ সামিট অন সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক আলোচনা সভার দ্বিতীয় দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, এখনও টেকনোলজিতে দেশ তেমন কিছু পায়নি। এসব শিক্ষায় শিক্ষিতরা দেশের উন্নয়মে তেমন ভুমিকা রাখতে পারেনি।

তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নে কৃষক, বিদেশে অবস্থারত শ্রমিক এবং বেসরকারি খাতের অবদান সবচেয়ে বেশি।

দেশের অর্থনীতিকে আরও এগিয়ে নিতে প্রান্তিক জনগোষ্টিকে পেশাগত ক্ষেত্রে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ দেওয়ার ব্যবস্থা করা দরকার বলে মনে করছেন মুস্তফা কামাল।

summit on bangladesh at du
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে আয়োজিত ‘বাংলাদেশ সামিট অন সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট’ শীর্ষক আলোচনা সভা। ছবি-মহুবার রহমান

এ ব্যাপারে সরকারের পরিকল্পনা বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, আমরা এখন প্রতি চারটি প্রকল্প হাতে নিলে এর মধ্যে একটি প্রকল্পে থাকে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক সংক্রান্ত যাতে করে বাংলাদেশের জনগোষ্ঠি পেশা ভিত্তিক শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে উঠতে পারে।

শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব সোহরাব হোসেন জানান, সরকার বর্তমানে দক্ষতা উন্নয়ন নীতিমালার আওতায় কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষাকে এগিয়ে নিতে ৩টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

সভায় বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান আব্দুল হক তালুকদার বলেন, ২০১৮ সালে বাংলাদেশের মোট জনগোষ্ঠির ২৮ দশমিক ৬ ভাগ কর্মক্ষম জনগোষ্ঠীতে পরিণত হবে। এই বিশাল জনগোষ্ঠির চাকুরির যোগান দিতে হলে কারিগরি ও বৃত্তিমূল শিক্ষার কোন বিকল্প নেই।

এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের প্রধান পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক রফিকুল ইসলাম মীর।

 

এইচকেবি/এসবি