৩ দিন পর আশুগঞ্জ নৌ-বন্দরের কার্যক্রম শুরু

0
76
Ashugang Rice Transhipmrnt
আশুগঞ্জ নৌ-বন্দরে চলছে চাল উঠা-নামা কার্যক্রম।

ভারী বর্ষণে টানা ৩ দিন বন্ধ থাকার পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ আর্ন্তজাতিক নৌ-বন্দর থেকে আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ত্রিপুরায় চাল পরিবহন শুরু হয়েছে। শনিবার সকালে ৩৫৭ টন চাল নিয়ে ২১টি কাভার্ড ভ্যান ত্রিপুরার আগরতলার উদ্দ্যেশে আশুগঞ্জ নৌ-বন্দর ছেড়ে গেছে। এ পর্যন্ত মোট ১০১টি কাভার্ড ভ্যানে প্রায় ১৭১৭ টন চাল ত্রিপুরায় পাঠানো হয়েছে।

Ashugang Rice Transhipmrnt
আশুগঞ্জ নৌ-বন্দরে চলছে চাল উঠা-নামা কার্যক্রম।

কলকাতার ডায়মন্ড হারবার পোর্ট থেকে ৫ হাজার টন চাল নিয়ে আসা ৫টি কার্গো জাহাজের মধ্যে এমভি লাভনী-২ থেকে কাস্টমস কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে চাল খালাস কাজও চলছে পুরোদমে। নৌ-বন্দরের স্বাভাবিক কার্যকমেও গতি ফিরেছে।

সূত্র জানায়, গত ৭ আগষ্ট আশুগঞ্জ নৌ-বন্দর থেকে আখাউড়া স্থলবন্দর হয়ে ত্রিপুরায় চাল পাঠানো শুরু হয়। গত ৬দিনে ৮০টি কাভার্ডভ্যানে প্রায় ১৩৬০ টন চাল ত্রিপুরায় পাঠানো পর ভারী বর্ষণে গত বুধবার ত্রিপুরায় চাল পাঠানো বন্ধ হয়ে যায়। গত ৩ দিন চাল পরিবহন বন্ধ থাকায় প্রায় ১ হাজার টন চাল প্রেরণে বিলম্ব হয়েছে। এতে কাভার্ডভ্যানের অতিরিক্ত ভাড়াসহ ঠিকাদারের প্রায় ১০ লাখ টাকা লোকসান গুনতে হয়েছে। ভারী বর্ষণে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের পণ্য উঠানামা বন্ধ ছিল।

পরিবহন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান গালফ ওরিয়েন্ট সিওয়েজ এর লজিস্টিক ব্যবস্থাপক মো. নুরুজ্জামান (জামান) বলেন, টানা ভারী বর্ষণে জাহাজ থেকে চাল ট্রান্সশিপমেন্ট বন্ধ থাকায় ত্রিপুরায় চাল পরিবহন গত ৩দিন বন্ধ ছিল। শনিবার সকালে জাহাজ থেকে পূণরায় চাল খালাস ও ত্রিপুরায় পাঠানো শুরু হয়েছে। ব্যবসায়ীদের ১০ লাখ টাকার বেশি লোকসান গুনতে হচ্ছে।

বিআইডাব্লিওটিএ‘র আশুগঞ্জ নৌ-বন্দরের পরিদর্শক (পরিবহন) মো. শাহ আলম জানান, দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে আশুগঞ্জ নৌ-বন্দরে পণ্য উঠানামা ৩ দিন বন্ধ ছিল। ফলে ত্রিপুরায় চাল পরিবহন করা সম্ভব হয়নি।

এমই/