নূর হোসেন ফের জেল হেফাজতে

0
46
নূর হোসেন
ছবি: নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের মামলার প্রধান আসামী নূর হোসেন
nur hosen
পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের হাতে আটক নূর হোসেন (মাঝে)। ফাইল ছবি

অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের বহুল আলোচিত ৭ খুন মামলার প্রধান আসামি নূর হোসেনকে আরও ১৪ দিন জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন ভারতের একটি আদালত। একই সাথে তার দুই সহযোগী ওয়াহিদুল জামান শামিম ও খান সুমনকেও জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

শনিবার পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বারাসাতের মুখ্য বিচার বিভাগীয় হাকিমের আদালত এই আদেশ দেন।

১৪ দিনের কারা হেফাজত শেষে এইদিন নূর হোসেন ও তার দুই সহযোগীকে বাগুইহাটি থানা পুলিশের দায়ের করা মামলায় শুনানিতে আদালতে হাজির করার কথা ছিল। গত ২ জুলাই নূর হোসেন ও তার দুই সহযোগীকে ১৪ দিন জেল হাজতে রাখার এই নিদেশ দেয়া হয়েছিল।

কিন্তু ওই আদালতের এক আইনজীবীর মৃত্যুর কারণে শনিবার তাদের আদালতে তোলা হয়নি।

পরে আদালত নূর হোসেন এবং দুই সহযোগীকে আরও ১৪ দিন কারা হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালত ভবনের কাছ থেকে ওয়ার্ড কাউন্সিলর নজরুল হোসেন ও অ্যাডভোকেট চন্দন কুমারসহ সাতজনকে অপহরণ করা হয়। পরে শীতলক্ষ্যা নদীতে তাদের লাশ পাওয়া যায়। অপহরণের পর পরই অভিযোগ ওঠে ওয়ার্ড কাউন্সিলর নূর হোসেন র‌্যাব-১১ এর তৎকালীন কমান্ডিং অফিসারসহ আরও তিন কর্মকর্তার সহায়তায় তাদেরকে অপহরণ ও হত্যা করেছে।

অপহরণের ১২ দিন পর চন্দন সরকারের জামাতা ডা. বিজয় কুমার নূর হোসেনকে প্রধান আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এতে র‌্যাব ১১ এর কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল তারেক সাঈদসহ আরও কয়েকজনকে আসামি করা হয়।

খুনের পরপরই নূর হোসেন কলকাতায় পালিয়ে যায় বলে অভিযোগ উঠে।

পরবর্তীতে গত ১৪ জুন পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের একটি দল কলকাতার দমদম বিমানবন্দরের অদূরে বাগুইহাটি থানার কৈখালি এলাকার একটি বাড়ি থেকে নূর হোসেন ও তার সহযোগীদের গ্রেপ্তার করে।