গাজার ট্রমা আক্রান্তদের সহায়তায় মুসার ই-ক্লিনিক

0
27
gaza
ইসরায়েলি হামলা থেকে ফিলিস্তিনিদের প্রাণে বাঁচার চেষ্টা

ডাউন সিনড্রোমে আক্রান্ত ৭ বছরের খালিদ একসময় আসাদ সরকারের বিরুদ্ধে বিপ্লবী গানে জোরেসোরে অংশ নিয়েছে। কিন্তু বোমা ও রকেটের হামলায় ভাষা হারিয়ে ফেলেছে সে। খালিদ আজ কোনো শব্দই বলতে পারে না।

gaza
ইসরায়েলি হামলা থেকে প্রাণে বাঁচতে পারলেও এদের অনেকেই শিকার হবেন ট্রমার

খালিদের মতো আতঙ্ক, নির্যাতন, মৃত্যু, যুদ্ধের ভয়াবহতা থেকে বেঁচে যাওয়া মানুষ ভোগে ট্রমায়। বার্লিনের একটি চিকিৎসা কেন্দ্র থেকে কয়েকজন থেরাপিস্ট সিরিয়া ও গাজার ভেঙে পড়া মানুষদের ইন্টারনেটের মাধ্যমে সাহায্য করে থাকেন। এই দলের প্রধান জিয়াদ মুসা। থেরাপিস্ট জিয়াদ মুসা ই-মেইলের মাধ্যমে তাদের যন্ত্রণা লাঘবের চেষ্টা করেন।

আরও ৪ জন আরব সহকর্মীর সাথে ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রতি মাসে প্রায় ৮০ জন মানুষের চিকিত্সা করে থাকেন মুসা। সিরিয়া, গাজা, ইরাক, জর্ডান কিংবা তুরস্ক থেকে ভুক্তভোগীরা ই-মেইলের মাধ্যমে তাঁদের দুঃখ-বেদনার কথা জানান। মুসাও মেইল করে তাদের যন্ত্রণা উপশম করার চেষ্টা করেন।

মুসা নিজেও এসেছেন সিরিয়া থেকে। তার পরিবার সেখানে বসবাস করেন। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের অনেক বন্ধু-বান্ধব নিখোঁজ হয়েছেন। মুসা খুব ভালোভাবেই জানেন তাদের ভাগ্যে কী ঘটে থাকতে পারে।

মুসা বলেন, ‘আসাদ সরকার কিংবা হামাসের সমর্থক, তিনি যেই হোন না কেন, আমরা তা নিয়ে মাথা ঘামাই না। আমাদের কাজ ভুক্তভোগীকে মানসিকভাবে চাঙ্গা করা’। মাস কয়েকের মধ্যে গাজা থেকে বহু রোগী তাদের ইন্টারনেট পোর্টালে তালিকাবদ্ধ হবেন বলে মনে করেন মুসা।

জার্মান সরকার ও গির্জার সাহায্য সংস্থা ‘মেসেরেয়র’-এর আর্থিক সহায়তায় চলছে ইন্টারনেট প্রকল্পটি।

ইউএম/