ট্রলারে ডাকাতি, বর-বধূসহ আহত ১০

0
47
munsigonj
মুন্সীগঞ্জ- ফাইল ছবি

মুন্সীগঞ্জের মেঘনা নদীতে একটি বরযাত্রীবাহী ট্রলারে ডাকাতি হয়েছে। এ সময় ডাকাতের হামলায় বর-বধূসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার রাত সোয়া ৮টার দিকের উপজেলার নয়নগর এলাকায় এই ডাকাতি হয়েছে বলে জানিয়েছে গজারিয়া নৌ-পুলিশের ইনচার্জ এসআই শাখাওয়াত হোসেন জানান, ।

তিনি বলেন, এ সময় ডাকাতদের হামলায় বর ও কনেসহ অন্তত ১০ জন আহত হন। তাদের নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বরযাত্রীদের বরাত দিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা সাখাওয়াত বলেন, ওই ট্রলার থেকে ১৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৫০টির কাছাকাছি মোবাইল ও নগদ টাকাসহ ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করেছে ডাকাত দল।

তিনি বলেন, নায়ায়ণগঞ্জ বন্দরের ইউসুফ আলীর ছেলে রুবেলের সঙ্গে চাঁদপুরের পূর্ব ষাটনলের ইউসুফ মেয়ে তানিয়ার বিয়ে হয়। বিয়ে শেষে সন্ধ্যার পর বর-বধূসহ ৬০ জনের একটি দল ইঞ্জিলচালিত নৌকা নিয়ে বন্দরের দিকে রওনা দিলে পথিমধ্যে ডাকাত দল ট্রলারের গতিরোধ করে। তারা বরযাত্রীদের মারধর করে ট্রলারটি মেঘনার মাঝনদী নয়ানগরের দিকে নিয়ে যায়।

ভয়ে ট্রলার থেকে নদীতে লাফ দিয়ে নারায়ণগঞ্জ বন্দর থানার মাহামুদ নগর এলাকার রহমত আলী চৌকিদারের ছেলে হাবিব চৌকিদার (২৮) নিখোঁজ ছিলেন।

ঘণ্টা খানেক পরে খোঁজ  নিয়ে জানা যায়, ওই বরযাত্রী বালুর ট্রলারে উঠে রক্ষা পেয়েছেন। পরে তাকে নৌ পুলিশ পাহারায় নারায়ণগঞ্জ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

বরযাত্রী সফিকুল ইসলাম বলেন, বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সেরে কনে নিয়ে বন্দরে ফিরছিলেন তারা। মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মেঘনা নদীতে এলে মাছের ট্রলারে করে ১০/১২ জনের একটি ডাকাত দল তাদের গতিরোধ করে।

এসময় ডাকাত দল দুটি বন্দুক উঁচিয়ে এবং দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে বর মো. রুবেল ও কনে তানিয়াসহ ১০ জনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এসময় ভয়ে বরযাত্রী হাবিব পানিতে লাফ দেন বলেও জানান তিনি।

এএসএ/